শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০২:২৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে ৩ শতাধিক প্রতিবন্ধীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করলেন নুনু মিয়াবেগম খালেদা জিয়া কে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে নীলফামারীর সৈয়দপুরে বিএনপির বিক্ষোভসিলেটে বন্যার্তদের নগদ অর্থ ও ত্রাণ বিতরণ করলেন প্রবাসী কমিউনিটি নেতা শফিক উদ্দিনকুমিল্লার দেবীদ্বার থানার মানবিক অফিসার ইনচার্জ প্রত্যাহারে সাধারণ মানুষের ক্ষোভ প্রকাশবিশ্বনাথে দশঘর ইউনিয়নে বন্যার্তদের ত্রাণ বিতরণ করলেন এসএম নুনু মিয়াওসমানীনগরে ২কোটি টাকা মূল্যের তিনতলা বাসা দখল নিয়ে দু’পক্ষের উত্তেজনাপররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সক্রিয় সম্পৃক্ততার আহ্বানবিশ্বনাথে ‘হাজী তেরা মিয়া ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট’র পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিতমৌলভীবাজার মুনিয়া নদী থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধার

হবিগঞ্জের উপজেলা চেয়ারম্যান মানব কল্যাণে অনন্য দৃষ্টান্ত

ডেস্ক রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩৭৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হবিগঞ্জে বাড়িতে ধুমধাম বিয়ের আয়োজন। বিয়ের গেইট, প্যান্ডেল থেকে শুরু করে আছে কয়েক শত মানুষের ভূরিভোজের আয়োজন। দেখে বুঝার উপায় নেই যে, যাদের জন্য এরকম ধুমধাম আয়োজন সেই বর-কনে কেউই এই বাড়ির নিকটাত্মীয় নয়। পিতৃহীন এরকম বর-কনের ধুমধাম বিয়ের আয়োজন করে নজির সৃষ্টি করলেন একজন উপজেলা চেয়ারম্যান।

তিনি হলেন হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট মুশফিউল আলম আজাদ। পেশায় একজন আইনজীবি হলেও মূলত তিনি একজন রাজনীতিবীদ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতির পথচলা শুরু করে বর্তমানে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। ৩৫ বছরের বর্নাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ার আর একাধারে ১৮ বছরের জনপ্রতিনিধি হয়ে দুখী মানুষের ভরসার আশ্রয়স্থল হয়ে উঠছেন তিনি।

জনপ্রতিনিধি হিসেবে উপজেলার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগে বিভিন্ন সৃজনশীল কাজ করে মানুষের মন জয় করে চলেছেন। এমনি এক অনন্য আয়োজন ছিল পিতৃহারা দুটি অসহায় পরিবারের বর কনের বিয়ের অনুষ্ঠান। বর উপজেলার করাব গ্রামের মৃত আফরোজ মিয়ার ছেলে মনির মিয়া (২৫) আর কনে পূর্ব বুল্লা গ্রামের মৃত অনু মিয়ার মেয়ে জোনাকি (১৯)।

বৃহ্স্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) উপজেলা চেয়ারম্যান তার নিজ বাড়ি হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার করাব গ্রামে আয়োজন করে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান। শুধুমাত্র বিয়ের অনুষ্ঠানই নয়, নব দম্পতির জন্য প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ তহবিল থেকে তিন লক্ষ টাকার বরাদ্দে তৈরী করে দেন দৃষ্টিনন্দন বাড়ি। এছাড়া ব্যক্তিগত তহবিল হতে বরের আর্থিক স্বচ্ছলতার জন্য নতুন ইজিবাইকসহ ব্যবহার্য যাবতীয় আসবাবপত্র বিয়েতে উপহার হিসেবে দেন তিনি। জানতে চাইলে লাখাই উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড. মুশফিউল আলম আজাদ জানান- সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে দুটি অসহায় পরিবারেরর বর কনের বিয়ের আয়োজন করেন তিনি। কনে জোনাকি দীর্ঘদিন তার বাসার গৃহকর্মী হিসেবে পরিবারের একজন হয়ে উঠেছিল পাশাপাশি বর তার পার্শ্ববর্তী বাড়ির বাসিন্দা।

বর কনের সংসার জীবনে স্বাবলম্বী হতে ব্যক্তি উদ্যোগে নতুন ইজিবাইক উপহার দেন বলে জানান তিনি।
সুত্র: সিলেট ভয়েস

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000