শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৫৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
শেখ কামাল আন্তঃস্কুল ও মাদ্রাসা এ্যাথলেটিকস্ প্রতিযোগিতার উদ্ভোধনসৈয়দপুরে সাবেক এমপি আমজাদ হোসেন সরকারসহ ৩ বিএনপি নেতার স্মরনসভা অনুষ্ঠিতমিরেরচরেই হবে টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ -বিশ্বনাথে এমপি মোকাব্বিরনীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ভূয়া এনএসআই সদস্যসহ আটক-২ওসমানীনগরের নবগ্রাম স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ কমিটি গঠনবাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা কমিটি গঠনসৈয়দপুরে বিসিক শিল্পনগরীতে প্লাইউড কারখানায় আগুনে কোটি টাকার ক্ষতিজামায়াত আমীর ডাঃ শফিকুর রহমানকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে লন্ডনে বিক্ষোভ সমাবেশছাতকের খুরমা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান বিজয় দিবসে আলোচনা সভানীলফামারীর সৈয়দপুরে মহান বিজয় দিবস পালিত

সৈয়দপুর বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড মেম্বার পদে মহিরের বিকল্প নাই

মোঃজাকির হোসেন,নীলফামারী প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১৪১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদে (সাধারণ সদস্য) এবার মোঃ মহির উদ্দিনের বিকল্প নাই। এখনই ওয়ার্ডের সকলের মুখে মুখে তার নাম সরব হয়ে উঠেছে।



ভোটাররা তাঁকে নির্বাচিত করার জন্য প্রতিশ্রুতিবন্ধ হয়ে স্বউদ্যোগে নাঠে নেমেছে ভোটের কার্যক্রমে। পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছে সমানতালে। বিশেষ করে তরুন প্রজন্মের নতুন ভোটাররা ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে প্রচার প্রচারণায় মেতে উঠেছে মহিরের পক্ষে।

গতকাল রোববার (৫ ডিসেম্বর) বিকালে প্রামাণিকপাড়ায় গণসংযোগকালে মহির উদ্দিন বলেন, আমি একজন চাউল ব্যবসায়ী (সরবরাহকারী)। দীর্ঘ দিন থেকে সততার সাথে ব্যবসা করে আসছি।

এর পাশাপাশি জনসেবায় নিয়োজিত। ১৯ বছর যাবত জনগণের সুখে দুঃখে তাদের পাশে থেকে সাহায্য সহযোগীতা করে যাচ্ছি। একারনে এলাকাবাসী আমাকে জনপ্রতিনিধি হয়ে সরকারী সুযোগ সুবিধা পাইয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিতে ভোট করার জন্য অনুরোধ জানায়।

তাদের উৎসাহ ও এলাকার মুরুব্বীদের পরামর্শে বিগত দুইবার মেম্বার পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি। প্রথমবার মাত্র ৩ ভোটের ব্যাবধানে পরাজিত হই। দ্বিতীয়বার প্রায় ৯০ টি ভোট বাতিল দেখিয়ে কৌশলে হারানো হয়। তারপরও জনগণের ডাকে সাড়া দিয়ে তাদের সকল কাজে সহযোগীতা অব্যাহত রেখেছি।

এবারও তাদের অনুরোধে প্রার্থী হয়েছি। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট হলে এবার জয়লাভে শতভাগ আশাবাদী। করোনাকালে নিজের সামান্য সামর্থ্য নিয়েই কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষকে সাহায্য করেছি। পক্ষান্তরে বর্তমান মেম্বার সরকারী ত্রাণ চুরি করায় ওয়ার্ডবাসীর মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়া রয়েছে।

তাছাড়া তিনি গরুচুরি করে ধরা পড়ায় সাসপেন্ড হওয়ায় সচেতন মানুষ পরিবর্তনের জন্য সচেষ্ট। সকলের সম্মিলিত ইতিবাচক প্রচেষ্টায় ইনশাআল্লাহ বিজয়ী হবো।

এলাকার তরুণ ভোটার রুবেল হোসেন বলেন, মহির উদ্দিন জনসেবায় একজন পরীক্ষিত মানুষ। জনপ্রতিনিধি না হয়েও তিনি প্রায় দুইযুগ ধরে নিঃস্বার্থভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। রাত দিন যখনই প্রয়োজন হয়েছে তখনই তাকে কাছে পেয়েছেন সর্বস্তরের মানুষ। ব্যক্তিগত জীবনেও তিনি অত্যন্ত নম্র, ভদ্র, সৎ ও আন্তরিক। মানুষের দুঃখ কষ্টে একান্ত সহমর্মী হিসেবে তিনি সবার কাছে সুপরিচিত।

অথচ আর কখনও চুরি করবেনা বলে কথা দিয়ে, ভালো হওয়ার জন্য সুযোগ চেয়ে এলাকাবাসীর ভোটে নির্বাচিত হয়ে চরম প্রতারণা করেছে বর্তমান মেম্বার সাইদুল। আগে সে দূর দূরান্তে চুরি করতো, আর মেম্বার হয়ে সে এলাকাতেই চুরি শুরু করেছে।

এমনকি ত্রাণ চুরি করাসহ সকল প্রকার ভাতা ও সহযোগীতা কার্ড করে দিতে রীতিমত বাণিজ্য করেছে। এসব কারণে অভিযোগের প্রেক্ষিতে শেষ পর্যন্ত সে বরখাস্তও হয়েছে। তার অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ ও সর্বসান্ত।

রাহেলা বেগম নামে একজন বয়স্ক মহিলা ভোটার বলেন, মহির ছোট বেলা থেকেই অত্যন্ত পরোপকারী ও মিশুক। তার আচরণে সকলেই সন্তুষ্ট ও সহযোগীতা পেয়ে উপকৃত। আমরা এবার অবশ্যই তাঁকে নির্বাচিত করবো।

চোরের অত্যাচারে আমরা খুবই সমস্যায়। অন্য যারা প্রার্থী হয়েছে তাদের তেমন কোন কর্মকান্ড নাই জনসেবায়। তাই মহিরের বিকল্প আর কেউ নাই ৫ নং ওয়ার্ডে।

একই রকম মতামত ব্যক্ত করেন সর্বস্তরের লোকজন। যার ফলে মহিরের বিজয় নিয়ে আগাম আভাস সৃষ্টি হয়েছে এলাকাজুড়ে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000