বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:০৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
নবীগঞ্জে হামিদুর রহমান হিলালের দ্বিতীয় বইয়ের মোড়ক উন্মোচনপটুয়াখালীতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর জন্মদিন পালিতদুমকিতে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভারাজনগরের জোড়া খুনের ৫আসামী গ্রেফতারবকশীগঞ্জে বিনামূল্যে সার ও মাসকালাই বীজ বিতরণরাজনগরের সোনাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হলেন সাংবাদিক আব্দুল হাকিম রাজসৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে আল্ট্রা সনোগ্রাম মেশিন থাকলেও সেবা থেকে বঞ্চিত রোগীরাবিশ্বনাথ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে সিভি জমা দিলেন ১০ আ’লীগ নেতাবিশ্বনাথ পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী মো. দবির মিয়া সকলের দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেনসিলেট-সুনামগঞ্জ মহা সরক দূর্ঘটনায় নিহত ১ আহত ২

সৈয়দপুরে ক্রয়কৃত জমিতে রাতের আধারে জোরপূর্বক ঘর নিমাণের অভিযোগ,পুলিশ দেখে পালিয়ে গেল দখলবাজ

মোঃজাকির হোসেন,নীলফামারী প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৯৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

নীলফামারীর সৈয়দপুরে এক মহিলার ক্রয়কৃত জমিতে রাতের আধারে জোরপূর্বক ঘর নিমাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশের উপস্থিতি দেখে পালিয়ে যায় ওই দখলবাজ। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার ৪ সেপ্টেম্বর বিকালে উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের মুশরত ধুলিয়া কচুয়ার ঝাড় এলাকায় ।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,কিসামত ডাঙ্গি চওড়া বাজার এলাকার আতিয়ার রহমানের স্ত্রী পেয়ারা বেগম ৭৬০ নং দাগের ১৫শতক জমি কবলা দলিল মুলে খারিজ করে ৩০/৩৫ বছর ধরে চাষাবাদ করে আসছেন। কিন্তু হঠাৎ গত১৮ আগষ্ট বিকালে জমির মালিক পেয়ারার ছেলে আলম সরকার ওই জমিতে একটি ছোট ঝুপড়ি ঘর দেখতে পায়। তখন এটি কে নিমাণ করেছে খোঁজ করেন এবং ওই জমিতে অপেক্ষা করেন। এ সময় জমির পাশের গ্রামের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে মিজানুর রহমান ও তোফাজ্জল হোসেন বাঙ্গী এসে বলে আমরা ঘর নিমাণ করেছি এবং পূণরায় নিমাণ কাজ করতে চাইলে আলম সরকার বাধা সৃষ্টি করে। এসময় দুই ভাই আলম সরকারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং মার ডাংয়ের চেষ্টা করলে তাঁর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে মার ডাং থেকে রক্ষা পান। এসময় দুইভাইসহ তাদের পরিবারের লোকজন হুমকি প্রদান করেন যে এরপর এই জমিতে আসলে বা ঘর নিমাণে কোন প্রকার বাধা সৃষ্টি করলে মেরে লাশ গুম করে দিব। প্রতিকার ও জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে ওই দিন সৈয়দপুর থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন আলম সরকার । জিডি নং-১২৩৯,তাং-১৮/০৮/২১ইং। গতকাল শনিবার ওই জমিতে আবারও এসে চালা নিমাণ ও মাটি কেটে উচু করনের কাজ শুরু করলে জরুরী সেবা ৯৯৯ কল দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসলে তোফাজ্জল হোসেন বাঙ্গী পালিয়ে যায় । অপর ভাই মিজানুর রহমান আর ওই জমিতে যাবে না বলে মুচলেকা দিয়ে রক্ষা পান।ওই জমি নিয়ে আদালতে মামলা বিচারাধীন রয়েছেন।
।এদিকে জমির মালিক পেয়ারা বেগম জমি জবর দখলের চেষ্টা এবং ঘর নিমাণকারী তোফাজ্জল হোসেন বাঙ্গীর বিচার দাবী করেছেন। এব্যাপারে তোফাজ্জল হোসেন বাঙ্গীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তার সাক্ষাত না হওয়ায় ও ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000