শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বকশীগঞ্জে সাংবাদিকদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের নবাগত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মতবিনিময়সৈয়দপুরে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেল ইজিবাইক চালকের ছেলে নয়ননীলফামারীর সৈয়দপুর ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের শরীর তিন খন্ডদুমকিতে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের আনন্দ শোভাযাত্রানীলফামারীর সৈয়দপুরে ৫ টি দোকান আগুনে পুড়ে ছাই, ২০ লাখ টাকার ক্ষতিওসমানীনগরে বাড়ির উঠান দিয়ে রাস্তা নিতে প্রতিবন্ধি পরিবারে হামলানীলফামারীর সৈয়দপুরে থানা ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠিতছাত্রদল নেতা নয়ন হত্যার প্রতিবাদে সৈয়দপুরে বিএনপি বিক্ষোভ সমাবেশওসমানীনগরে কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণবালাগঞ্জে ফ্রান্স প্রবাসী কমিউনিটি নেতা সুমন এর পিতৃবিয়োগ

সুনামগঞ্জ জর্জ কোর্ট প্রাঙ্গনে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

শান্তিগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২২ জুলাই, ২০২২
  • ৬৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সুনামগঞ্জের আদালত এলাকায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে খোকন মিয়া নামের এক যুবক খুন হন। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা আইনজীবী সমিতির সামনে এ ঘটনা ঘটে।



নিহত খোকন মিয়া জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়ন এর গলাখাই গ্রামের ফটিক মিয়ার ছেলে।
এই গঠনায় জরিত তিন জনকে তাৎক্ষণিক আটক করা হয়, এবং পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

তারা হলেন গলাখাই গ্রামের মুহিবুর রহমান এর ছেলে ফয়েজ আহমেদ,আফরোজ মিয়ার ছেলে সাজিদ মিয়া,আফরোজ মিয়ার ছেলে সেবুল মিয়া।

ঘটনায় জড়িত জাহান নামের অপর এক অপরাধী পুলিশের জিম্মা থেকে পালিয়ে যায় বলে যানা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা, নিহত খোকন মিয়ার সাথে থাকে খুনের ঘটনায় জরিত চার যুবকের জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে আদালতে মামলা চলছিল।

বৃহস্পতিবার নির্ধারিত তারিখে আদালতে হাজিরা দিতে এসে দুপুর সাড়ে ১২ টার সময় আইনজীবী সমিতির সামনে খোকন কে একা পেয়ে ফয়েজ, সাজিদ, জাহান ও সেবুল উপর্যুপরি ছুরি ঘাত করে।

বিষয়টি দেখে উপস্থিত জনতা আইনজীবী ও সহকারী রা এগিয়ে গিয়ে ফয়েজ, সাজিদ, সেবুলনকে ধরে সমিতির ঘরে আটক করা হয়। জাহান নামের অপর আসামি পালিয়ে যায়।

পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতা আটক করে থাকে আদালত এলাকায় দায়িত্বরত এক পুলিশ সদস্য দের জিম্মায় দিলে সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

আটক তিনজনকে অস্ত্র সহ পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
এদিকে ছুরি ঘাতে আহত খোকন মিয়াকে আইনজীবী তাদের সহকারীরা হাসপাতালে পাঠালে বেলা ১টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

অপরদিকে বেলা দের টার সময় ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে আসেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদ।
এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন আইনজীবী দের সহযোগিতায় যে তিনজন কে আটক করা হয়েছে তাদের কে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার কারন জানা হবে।
এই ঘটনায় কর্তব্যরত পুলিশ কর্তৃক দায়িত্ব পালনে অবহেলার কোন প্রামাণ্য পাওয়া গেলে ব্যবস্হা নেওয়া হবে বলে জানান।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000