শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:২০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
শাহজালাল (রঃ) একাডেমির ৫ম শ্রেনীর বিদায় বিদায় অনুষ্ঠান আলোচনা ও দোয়া সভা সমপন্নছাতকে ইউনিয়ন যুবলীগের ওয়ার্ড কমিটি গঠনভাড়াটিয়া কর্তৃক সৈয়দপুরে দোকান দখল, মিথ্যে মামলায় হয়রানী ও প্রাণনাশের হুমকির বিচার চায় বৃদ্ধাবকশীগঞ্জে সাংবাদিকদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের নবাগত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মতবিনিময়সৈয়দপুরে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেল ইজিবাইক চালকের ছেলে নয়ননীলফামারীর সৈয়দপুর ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের শরীর তিন খন্ডদুমকিতে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের আনন্দ শোভাযাত্রানীলফামারীর সৈয়দপুরে ৫ টি দোকান আগুনে পুড়ে ছাই, ২০ লাখ টাকার ক্ষতিওসমানীনগরে বাড়ির উঠান দিয়ে রাস্তা নিতে প্রতিবন্ধি পরিবারে হামলানীলফামারীর সৈয়দপুরে থানা ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠিত

সুনামগঞ্জ ছাতকের ভাতগাঁও ব্রিজে আবর্জনা আটকে মানুষ অসুস্থতায় ভুগছেন

শান্তিগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৪ জুলাই, ২০২২
  • ৬৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার ভাতগাঁও ইউনিয়নের ভাতগাঁও গ্রামের উত্তর পাড়া ও দক্ষিণ পাড়া প্রায় ৪ থেকে ৫ শত মানুষ ভয়ানক দুর্গন্ধের কারণে অসুস্থতায় ভুগছেন।



এই সুত্রে জানা যায় ছাতক উপজেলার ভাতগাঁও ইউনিয়নের ভাতগাঁও গ্রামের উত্তর পাড়ার ব্রিজটি ২০১৪ সালে সরকারী বরাদ্দে তৈরি করা হয়। কিন্তুুু তখন গ্রামের মানুষ ও তখন কার বর্তমান চেয়ারম্যান সহ ইন্জিনিয়ার কে বলেছিলেন যে ব্রিজটি যেনো উচু করে দেয়া হয় কিন্তুুু তা না মেনে ইন্জিনিয়ার ব্রিজটি তৈরি করে।

তৈরি করার পর থেকে বছরের ৭ থেকে ৮ মাস ঐ ব্রিজে অনেক গুলো নদীর আবর্জনা বাড়ি ঘরের ময়লা আবর্জনা মৃত পশু পাখি এক কথায় সব এসে এই ব্রিজে এসে আটকে যায়। যা পরিবেশের ব্যপক ক্ষতি করছে। উত্তরপাড়ার প্রায় ১০ হাজার মানুষের যাতায়াত এই ব্রিজের উপর দিয়ে। সবাই নাখ মুখ ডেকে দৌড়ে ব্রিজ টি পার হোন কিন্তু অসুস্থ যারা তাদের ভোগান্তির শেষ নেই এবং ব্রিজ থেকে ৫০ ফুট দুরে একটি মহিলা মাদ্রাসা আছে এই দুর্গন্ধের কারনে ছাত্রীদের মাদ্রাসায় যাওয়া আসা করতে অনেক কষ্ট হয়।

তারপর সেখানে একটি জামে মসজিদ রয়েছে মসজিদের ইমাম সাহেব বলেন এই দুর্গন্ধের কারনে মসজিদে জানলা সবসময় বন্ধ রাখতে হয় এরপরেও নামাজে ব্যগাত ঘটায় এই বাজে দূর্গন্ধ।

এবং ভাতগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাহেব বলেন উর্ধতন কর্মকর্তারা এ বিষয়ে আশ্বাস দিলে এখনো এর কোনো প্রতিকার হচ্ছে না তাই আমি একজন চেয়ারম্যান হয়ে সরকারের কাছে আবেদন করছি যাতে এই ব্রিজ বেঙ্গে নতুন করে ব্রিজটি পুনঃ নির্মান করা হয়।

বড় যে সমস্যা টি হচ্ছে সেটি হচ্ছে নৌকা চলাচল পুরোপুরি ভাবে বন্ধ হয়ে গেছে। জেলে থেকে শুরু করে যারা নৌকার মাধ্যমে অন্যান্য ব্যবসার সাথে জড়িত তারা ব্যপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এটি সুরমা নদীর একটা ডাল তাই স্রোত অনেক হওয়ার কারণে পানির বেগ অনেক বেশি থাকার ফলে ব্রিজে পানির ধাক্কার ফলে যা প্রতিক্রিয়া হয় তার ফলে উভয় পারের রাস্তার প্রতি বছরই ফাটল ধরে এবং শুকনো মৌসমে ধসে পরে। এর জন্য প্রতিবছরই রাস্তা মেরামত করতে হয় পঞ্চায়েতের তহবিল হতে।যা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে।

এই ব্রিজ ভাতগাও গ্রামের উত্তরপাড়ার প্রায় ১০ হাজার মানুষের আশা যাওয়ার মাধ্যম অনেক আশার প্রদীপ কিন্তু এখন এই ব্রিজ টি উপকারের চাইতে অপকার ঠাই বেশি করছে। মানুষ এখন এর পরিত্রান চায়। বাংলাদেশ সরকারের নিকট তাদের দাবী এই ব্রিজ ভেঙ্গে নতুন আরেকটি উচু ব্রিজ এখানে পুনঃ নির্মান করে দিলে এলাকার মানুষ অনেক উপকৃত হবেন।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000