বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০২:৪০ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে ‘হাজী তেরা মিয়া ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট’র পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিতমৌলভীবাজার মুনিয়া নদী থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধারমৌলভীবাজারের রাজনগরে গ্রীল ভেঙে ঘরে ঢুকে গরু চুরিবিশ্বনাথে কলেজ ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী আহত : আটক ১বিশ্বনাথের খাজাঞ্চী ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ করলেন শফিক চৌধুরীনীলফামারীর সৈয়দপুরে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া কে হত্যার হুমকি প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভমৌলভীবাজারের রাজনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় ১জন নিহতবিশ্বনাথের রামপাশা ইউনিয়নে বন্যার্তদের মধ্যে অ্যাডভোকেট গিয়াসের চাল বিতরণরাজনগরে সম্পন্ন হলো অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ কর্মশালা

সুনামগঞ্জে একদিনে ৩ লাশ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৭ মে, ২০২২
  • ৫৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলায় ২৪ ঘন্টার মধ্যে মোটরসাইকেল চালকের ভাসমান লাশ উদ্ধার, গলায় ফাঁস দিয়ে যুবক ও বিষপান করে যুবতীর আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। মোটরসাইকেল চালক ইকবাল হোসেন (৩৬) দিরাই পৌরসভার দাউদপুর এলাকার ছটাই উল্লার ছেলে। গলায় ফাঁস দিয়ে ফজলুর রহমান (২৮) নামে যুবক আত্মহত্যা করেছে।



সে চরনারচর ইউনিয়নের পশ্চিম দৌলতপুর গ্রামের রজব আলীর ছেলে। আর বিষপানে মনোয়ারা বেগম (১৭) নামে আরেক যুবতীর আত্মহত্যা করেছে। সে দিরাই সরমঙ্গল ইউনিয়নের নাচনী চন্ডিপুর গ্রামের আব্দুল হাই এর মেয়ে। বৃহস্পতিবার রাতেই ইকবালের লাশ উদ্ধার ও মনোয়ারা বেগমের আত্মহত্যার বিষয়ে থানায় পৃথক অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকাল চারটায় দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের দত্তগ্রাম ও মধুরাপুরের মধ্যবর্তী লাউরানজানী ব্রীজের পাশে সোমা নদী থেকে মাটরসাইকেল চালকের ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়।

একই দিন সরমঙ্গল ইউনিয়নের নাচনী চন্ডিপুর গ্রামের মনোয়ারা বেগম পরিবারের লোকদের অগোচরে বিষপান করে। স্বজনরা তাকে দিরাই উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অপরদিকে শুক্রবার জুমার নামাজের পর পরিবারের লোকদেরকে ঘুমানোর কথা বলে নিজ বসতঘরের দরজা আটকিয়ে গলাশ ফাঁস দিয়ে দৌলতপুর গ্রামের রজব আলীর ছেলে ফজলুর রহমান আত্মহত্যা করেছে।

দিরাই থানা পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকাল দুই টার পরে ইকবাল হোসেন ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলটি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। বৃহস্পতিবার দুপুরে নদীতে একটি ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে দিরাই থানার পুলিশকে খবর দেয় এলাকাবাসী। দিরাই থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সাইফুল আলম খবর পেয়ে একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে নদী থেকে লাশটি উদ্ধার করে। পরে লাশের সাথে থাকা মানিব্যাগ তল্লাসী করে ইকবাল হোসেনের পরিচয় সনাক্ত করা হয়।

উপজেলার ভাটিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান বদরুল ইসলাম চৌধুরী মিফতাহ বলেন, নদীতে একটি ভাসমান লাশের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে দেখি আনুমানিক ১০০ মিটার দূরে নাম্বার বিহীন একটি মটরসাইেকল দাঁড়ানো আছে। পরে আমি বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করি।

দিরাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সাইফুল আলম বলেন, একটি ভাসমান লাশের খবর পেয়ে একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। পরে মানিব্যাগে থাকা জাতীয় পরিচয় পত্র দেখে তার পরিচয় সনাক্ত করা হয়েছে। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরন করেছে পুলিশ।

সন্ধ্যা বেলা মনোয়ারা বেগম নামে আরেক যুবতী বিষপানে আত্মহত্যার খবর পেয়ে হাসপাতাল থেকে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। দুটি ঘটনায় দিরাই থানায় পৃথক অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ফজলুর রহমানের আত্মহত্যার খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000