বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে দুর্গত মানুষের মধ্যে এলবিএইচএইচ পক্ষ হতে নগদ অর্থ বিতরণবিশ্বনাথে বন্যার্তদের ঈদ উপহার দিয়ে যাত্রা শুরু করল সৈয়দবাড়ি ফাউন্ডেশনবিশ্বনাথ উন্নয়ন সংস্থা ইউকের আর্থিক সহযোগিতা পেলেন ২ শতাধিক বন্যার্তনীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার ৪৬২১ জনের মাঝে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ করলেন মেয়র রাফিকাবালাগঞ্জে কন্ঠ শিল্পী বন্যা তালুকদারের পক্ষ থেকে ত্রান সামগ্রী বিতরণবিশ্বনাথে বিভিন্ন স্থানে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করলেন এসএম নুনু মিয়াবিশ্বনাথে বন্যার্তদের মাঝে বেইত আল-খাইর সোসাইটি’র খাদ্যসামগ্রী বিতরণবিশ্বনাথে আশ্রয়ণ প্রকল্পে এসএম নুনু মিয়ার এান ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণসাংসদ আদেলের বরাদ্দে খাতামধুপুরের সুতারপাড়াবাসী পেলো হেরিং বোন রাস্তারাজনগরে ভোটার তালিকা হালনাগাদ সমন্বয় কমিটির সভা

সারা দেশে ট্রেন-বাস চালু হওয়ায় মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরেছে

ডেস্ক রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৪ মে, ২০২১
  • ৩০৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সারাদেশে একযোগে চালু হয়েছে দূরপাল্লার বাস ও ট্রেন। দেশে করোনা ভাইরাস মহামারী আকারে ধারণ করায় টানা লকডাউনে গত ৫ই এপ্রিল থেকে ট্রেন ও বাস ২৩ মে পর্যন্ত বন্ধ ছিল।

প্রায় দুই মাস বন্ধ থাকার পর আজ ২৪ মে যথারীতি ট্রেন ও বাস চালু হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে টিকিট বিক্রির মাধ্যমে যথারীতি যাত্রীরা এ সেবা গ্রহণ করছেন। শায়েস্তাগঞ্জে দূরপাল্লার বাসের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী ও বাস শ্রমিকদের যাতায়াত করতে দেখা গেছে। তবে প্রথম দিন হওয়ায় যাত্রী তুলনামূলক কম দেখা গেছে।

এদিকে সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ঢাকা থেকে ছেড়ে এসে আজ সকাল ৯ টা ৫০ মিনিটে শায়েস্তাগঞ্জ রেল স্টেশনে এসে পৌঁছায়। জয়ন্তিকা সকাল ১১টা ১৫ মিনিটে সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শায়েস্তাগঞ্জ স্টেশনে যে পরিমাণ টিকেট বরাদ্দ করা আছে তা খুবই কম। টিকেট কাউন্টার থেকে জানা যায়, পারাবতের জন্য ৪০ টি, উদয়নের জন্য ৪৫ টি, পাহাড়িকার জন্য ৪৫টি,জয়ন্তিকার জন্য ৪৫ টি সিট আছে। এর ভিতর আবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৪৫ টি সিটের বিপরীতে ২৩ টি সিট অনলাইনে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার সাইফুল ইসলাম জানান, সারা বাংলাদেশেই ১০৮টি আন্তঃনগর ট্রেন আছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাত্র ২৮ টি ট্রেন সমগ্র দেশে সচল রয়েছে। সিলেটে মোট ৬টি আন্ত:নগর ট্রেন চলবে। ৭০৯-৭১০ পারাবত, ৭১৮-৭৩৯ জয়ন্তিকা, উপবন ৭১৯-৭২৪, পাহাড়িকা ও উদয়ন ট্রেন গুলো ঢাকা এবং চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে এসে সিলেটে আসবে এবং সিলেট থেকে আবার ছেড়ে ঢাকা ও চট্টগ্রাম যাবে। এছাড়া ও সমগ্র দেশে আটটি পণ্যবাহী ও তেলবাহী ট্রেন আপ এন্ড ডাউন করে। তার মাঝে সিলেটে দুইটি পণ্যবাহী ও তৈল বাহি ট্রেন নিয়মিত যাতায়াত করে।

স্টেশনমাস্টার আরও জানান প্রতিটি টিকেট অনলাইনে কাটতে হয় এবং যাত্রীগণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্টেশনে অবস্থান করেন। কাউন্টারগুলো বন্ধ থাকে, সেখান থেকে কোনরকম টিকেট দেয়া হয়না এবং দূরত্ব বজায় রেখে যাত্রীগণ স্টেশনে অবস্থান করছেন। অন্যদিকে, দীর্ঘদিন পরে ঢাকা সিলেট মহাসড়কে বাস চলাচল শুরু হলেও তুলনামূলকভাবে গাড়ির সংখ্যা কম। গরমের তীব্রতা বেশি থাকায় কাউন্টারগুলোতে যাত্রীর সংখ্যা কম রয়েছে। তবে, সীমিত যাত্রী নিয়ে বাস চলাচল শুরু হওয়ার কারণে বাস চালক ও শ্রমিকদের মাঝে কিছুটা হলেও স্বস্তি দেখা গেছে।

হবিগঞ্জ জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শঙ্খ শুভ্র রায় বলেন, দূরপাল্লার বাস স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাতায়াত শুরু করে দিয়েছে। নিয়মানুযায়ী এক সিট ফাঁকা রেখে যাত্রীদের বসতে হচ্ছে। সেক্ষেত্রে বাসভাড়া যাত্রীদেরকে শতাংশ বেশি গুনতে হচ্ছে। এটি সরকারি নিয়ম হওয়ার কারণে আমাদের পক্ষে কিছু করার নেই। আমরা সরকারী বিধিনিষেধ মেনে গাড়ি চালানোর জন্য চালকদেরকে নির্দেশ দিয়েছি।

আলোকিত সিলেট/এমবিএইচ

 

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000