শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম নুনু মিয়া’র জন্মদিন উপলক্ষ্যে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলজ্বালানী তেল ও নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে সৈয়দপুরে জাপা’র বিক্ষোভ ও সমাবেশকুলাউড়া সরকারি কলেজ থেকে দুই বহিরাগত আটককুমিল্লার দেবীদ্বারে সাংবাদিক মামুনুর রশিদের বিরুদ্ধে ফেইসবুকে মিথ্যা অপপ্রচারের অভিযোগরাজনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি উদ্ভোদননীলফামারীর সৈয়দপুরে নানা আয়োজনে আশুরা পালনমজুরী বৃদ্ধির দাবিতে চা শ্রমিকদের কর্মবিরতিসিলেটের বিশ্বনাথে সূচনার সমন্বয় সভা অনুষ্টিতজামালপুরের বকশীগঞ্জে স্থলবন্দরে ভারতীয় ট্রাক চাপায় নারী শ্রমিক নিহতরাজনগরে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের জন্ম বার্ষিকী পালিত

সাংসদ আদেলের বরাদ্দে খাতামধুপুরের সুতারপাড়াবাসী পেলো হেরিং বোন রাস্তা

মোঃজাকির হোসেন,নীলফামারী প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২
  • ৩৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাটির রাস্তাটি ভেঙে খানাখন্দে ভরে যাওয়ায় যানবাহন দূরের কথা পায়ে হেটে চলাও দূরহ হয়ে পড়েছিল। তবুও শুকনো মৌসুমে যেনতেন ভাবে যাওয়া আসা করা গেলেও বর্ষাকালে একেবারে অকেজো হয়ে পড়তো। একহাঁটু কাদা পেরিয়ে চলাচল করতে হতো এলাকাবাসীকে। ফলে সংষ্কারের অভাবে চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়ায় যাতায়াতে দীর্ঘ দিন থেকে ভোগান্তি পোহাচ্ছিল তারা।



এটি নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সুতারপাড়ার একমাত্র সড়কের কয়েকদিন আগের কথা। যা এখন আর সেই অবস্থায় নেই। এক সপ্তাহ হলো এই সড়কটি সংষ্কার করা হয়েছে। প্রায় ৫ লাক্ষ টাকা ব্যায়ে ৩৫০ ফুট দৈর্ঘ্যের কাদাযুক্ত ওই রাস্তাটি ইটের গাঁথুনি দিয়ে (হেরিং বোন) করা হয়েছে। ফলে যাতায়াতে ব্যাপক সুবিধা হয়েছে।

এই সুবিধার ব্যবস্থা করেছেন নীলফামারী-৪ (সৈয়দপুর-কিশোরগঞ্জ) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আহসান আদেলুর রহমান আদেল। তিনি এলাকাবাসীর এই দূরাবস্থার কথা জেনে তাৎক্ষণিক তার সাধ্যমত বাংলাদেশ সরকারের ত্রাণ ও দূর্যোগ মন্ত্রনালয়াধীন একটি প্রকল্প বরাদ্দ দেন রাস্তাটি সংষ্কারের জন্য। সে অনুযায়ী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের (পিআইও) মাধ্যমে কাজটি সম্পন্ন করেন স্থানীয় ঠিকাদার আমিনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, এমপি সাহেবের বদান্যতায় দ্রুততম সময়েই রাস্তাটি সংষ্কারে ডিও লেটার ও বরাদ্দ পাওয়ায় কাজ যথাযথভাবে করা সম্ভব হয়েছে। সিডিউল অনুযায়ী মানসম্মত ইট দিয়ে অত্যন্ত যত্নসহকারে কাজটি করেছি। আমার বাড়ির সামনের রাস্তা তাই বাড়তি তদারকি আর আন্তরিকতার সাথে এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে সম্পন্ন করা হয়েছে। ফলে দীর্ঘ দিনের ভোগান্তি দূর হয়েছে।

একই রকম মন্তব্য ব্যক্ত করেন এলাকার বয়োজ্যেষ্ঠ মজম উদ্দিন। তিনি বলেন, রাস্তাটা খুবই খারাপ হয়ে পড়েছিল। অনেক কষ্ট করে ডাঙ্গাপাড়ার মসজিদে যাতায়াত করতে হতো। শিক্ষার্থীরাও চরম ভোগান্তি পোহায়ে স্কুল মাদরাসার যাওয়া আসা করতো। এখন সেই দূর্ভোগ শেষ হয়েছে।

রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী ডাঙাপাড়ার ভ্যানচালক রহিমুদ্দি বলেন, আগে এপথে আসতেই ভয় পাইতাম। ভাড়া বেশি দিতে চাইলেও আসতামনা। কারণ এবড়োখেবড়ো রাস্তায় আসলেই ভ্যানের কোন না কোন ক্ষতি হত। সেইসাথে যাত্রীরাও আঘাত পেতো। তাছাড়া বৃষ্টির দিনে কাদায় মাখামাখি হতে হতো। এখন হেরিং বোন হওয়ায় হাওয়ার গতিতে মনের আনন্দে চলাচল করছি। এজন্য এমপি আদেলসহ সরকারের প্রতি ধন্যবাদ জানান।

ফাতেমা নামে এক ভ্যানযাত্রী বলেন, এটাই সুতারপাড়া ও ডাঙ্গাপাড়ার লোকজনের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা। এই রাস্তা দিয়েই হামুরহাট হয়ে বা জুয়েল চেয়ারম্যানের বাড়ি হয়ে হাজারীহাট বা খালিশা যেতে হয়। কিন্তু রাস্তাটা এতটাই ভাঙ্গাচুরা হয়ে গেছিল যে ২০০ গজ দূরে ডাঙ্গাপাড়া স্কুল বা মসজিদে যেতে হলে হয় ১ কিলোমিটার ঘুরে পাকা সড়ক দিয়ে যেতে হতো। নয়তো ১০০ ফুট নষ্ট রাস্তায় কাদা মাড়িয়ে কষ্ট করতে হতো। এখন কত ভালো হয়েছে। রিকশা ভ্যান নিয়েও যাওয়া যাচ্ছে।

আবেদ আলী নামে এক তরুন জানান, যাতায়াত ব্যবস্থা উন্নত না হলে এলাকার উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই এই রাস্তাটার উন্নয়ন খুব জরুরী ছিল। বিশেষ করে ভোগান্তি লাঘবে অনেক আগেই এব্যাপারে উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন ছিল। দেরিতে হলেও শেষ পর্যন্ত সংষ্কার হওয়ায় আমিনুল চাচা ও এমপি আদেলকে কৃতজ্ঞতা জানাই। বিশেষ করে ভালো মানের ইট দিয়ে সঠিকভাবে কাজটা করার জন্য।

সেই সাথে এই ৩৫০ ফুটের সাথে আরও একটি ৩০০ ফুটের প্রকল্প বরাদ্দ দিয়ে পাকা রাস্তা পর্যন্ত বাকিটুকু হেরিং বোন করে দিলে আরও বেশি উপকৃত হতো এলাকাবাসী। আশা করি আগামী অর্থবছরে এই কাজটা উপহার দিবেন এমপি আদেলুর রহমান আদেল। এসময় উপস্থিত অন্যরাও সমস্বরে এই দাবীর সাথে একমত পোষণ করেন এবং বিষয়টি গুরুত্বসহ উপস্থাপনের জন্য আমিনুল ইসলামের প্রতি জোড় অনুরোধ জানান।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000