সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৬:৫০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
এনটিভির ২০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খাবার বিতরণ ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদানবিশ্বনাথে বন্যার্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার এান ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন নুনু মিয়ারাজনগরে কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও কৃষি অফিসারের কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধনবিশ্বনাথে থানা পুলিশের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণছাতকে ইমাম মোয়াজ্জিন গণকে খাদ্য সামগ্রী উপহার দিলেন সাহেলবিশ্বনাথে ‘বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের’ নগদ অর্থ বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে ইউনিয়ন বিএনপির কার্যালয় উদ্বোধনবালাগঞ্জে সালমান আহমেদের পরিবারের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণবিশ্বনাথে এক শিক্ষককে প্রাণ নাশের হুমকি দেওয়ায় থানায় সাধারণ ডায়েরীউপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান বকশীগঞ্জের আলহাজ গাজী আমানুজ্জামান মডার্ন কলেজ

যুক্তরাষ্ট্রে স্বামীর হাতে নিহত স্ত্রী শাপলার জানাজা ও দাফন সম্পন্ন

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৩ জুন, ২০২২
  • ৮৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সিতে মেয়ের জন্মদিনের রাতে স্বামীর হাতে খুন হওয়া একসন্তানের জননী ছায়মা তাসনিম শাপলা (২৩) এর লাশ সিলেটের বিশ্বনাথে দাফন করা হয়েছে। তিনি উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের হাজরাই গ্রামের মৃত হাজী মখদ্দুছ আলীর একমাত্র মেয়ে।



সোমবার (১৩ জুন) বিকেলে যুক্তরাষ্ট্র থেকে তার লাশ দেশে পৌঁছলে সন্ধ্যার পর জানাজার নামাজ শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে বাবার পাশে সমাহিত করা হয়।

নিহতের মা জাহানারা বেগম জানান, ‘গত ৪ জুন শনিবার শাপলার একমাত্র মেয়ে শাহিদা বেগম ফারিহার (৫) জন্মদিনের রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় শাপলাকে গলাটিপে খুন করে তার পাষন্ড স্বামী আবদাল হোসেন। পরে, তাকে সেখানকার পুলিশ গ্রেপ্তার করলে সে খুনের দায় স্বীকার করে। ফারিহার জন্মদিন পালন করতে সেদিন আবদাল শাপলার নিউজার্সির বাসায় গিয়েছিল।’
কান্নাজড়িত কণ্ঠে জাহানারা বেগম আরও জানান, ‘আমাদের প্রতিবেশী সমুজ আলীর ছেলে আবদাল হোসেনের সাথে ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় আমার মেয়ে শাপলার। ২০১৭ সালে সে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমায়।

কিন্তু শুরু থেকেই আমার মেয়েকে মেনে নিতে পারেননি আবদালের মা মিনারা বেগম ও বড়ভাই আক্তার হোসেন।
তারা সেখানে আমার মেয়েকে নানাভাবে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করতো তারা। বাংলাদেশ থেকে তাদেরকে ইন্ধন যোগাতো একই গ্রামের মৃত আঞ্জব আলীর ছেলে সুজন মিয়া। খুন করার কিছুদিন পূর্বেও একবার শাপলাকে মারপিট করেছে আবদাল। আমার মেয়ে তার যন্ত্রণায় অতিষ্ট হয়ে নিউজার্সি শহরে মেয়েকে নিয়ে একা থাকতো।

আর আবদাল থাকতো তার মা-বাবার সাথে মিশিগান শহরে। আমার মেয়ের কাছে থাকা সব টাকা পয়সা আবদাল কেড়ে নিয়েছিল। ফোনে কথা হলে শাপলা আমাকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে এসব বলতো, আবদাল পরকীয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে পড়েছে।

মেয়েদের সাথে ধারণ করা তার বিভিন্ন ধরণের ভিডিও শাপলাকে দেখিয়েই ফোন থেকে মুছে ফেলতো আবদাল।’

এদিকে, আজ সোমবার বিকেলে সাইমা তাসনিম শাপলার লাশ বাড়িতে পৌঁছলে সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। তার স্বজনদের কান্নায় ভারী হয় আশপাশের পরিবেশ। শেষ সম্ভল একমাত্র সন্তানকে চিরতরে হারিয়ে চিৎকার করে কান্না করতে গিয়ে বারবার মুর্চ্ছা যাচ্ছিলেন শাপলার মা জাহানারা বেগম। তিনি তার মেয়ের হত্যাকারী ও হত্যাকান্ডের পেছনে ইন্ধনদাতাদের শাস্তির জন্যে যুক্তরাষ্ট্র সরকার, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও পররাস্ট্রমন্ত্রীর কাছে আকুল দাবি জানান।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000