বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৩:০৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে ‘হাজী তেরা মিয়া ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট’র পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিতমৌলভীবাজার মুনিয়া নদী থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধারমৌলভীবাজারের রাজনগরে গ্রীল ভেঙে ঘরে ঢুকে গরু চুরিবিশ্বনাথে কলেজ ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী আহত : আটক ১বিশ্বনাথের খাজাঞ্চী ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ করলেন শফিক চৌধুরীনীলফামারীর সৈয়দপুরে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া কে হত্যার হুমকি প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভমৌলভীবাজারের রাজনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় ১জন নিহতবিশ্বনাথের রামপাশা ইউনিয়নে বন্যার্তদের মধ্যে অ্যাডভোকেট গিয়াসের চাল বিতরণরাজনগরে সম্পন্ন হলো অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ কর্মশালা

বিশ্বনাথ উপজেলাবাসীকে ইংরেজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান হাবিব

ফারুক আহমদ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১৯১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে উপজেলাসহ দেশ বিদেশে অবস্হারত সকল প্রবাসীদের ইংরেজি নববর্ষ ২০২২ এর শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পৌর শহরের আলহাজ্ব লেচু মিয়া স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সপাল মাওলানা হাবিবুর রহমান।



তিনি ( মাওলানা হাবিবুর) এক শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন,
বিদায়ী বছরের বিষন্নতাকে ছাপিয়ে মনকে উৎফুল্ল করে তোলে নতুন বছরের আগমনী বার্তা। ক্যালেন্ডারের শেষ পাতাটি ছিঁড়ে একসঙ্গে উচ্চারিত হয় হ্যাপি নিউ ইয়ার। নতুন দিনের সূচনা, নতুন করে পথচলা। নতুন প্রাণ চাঞ্চল্যতা, নতুন শপথ সব কিছুই যেন একাকার হয় বছরের প্রথম দিনটিতে এসে। অতীতকে মুড়িয়ে দিয়ে নতুন এক সময়কে বরণ করে নেয়ার শিহরণই যেন অন্যরকম।

পুরোনো গ্লানি মুছে নতুন ভাবে বাঁচার প্রত্যয়ে যেমন শুরু হয় বাংলার নববর্ষ। ঠিক তেমনি ইংরেজী মাসের শেষে উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হয় থার্টি ফাস্ট নাইট। বছরের শেষে দিনটিতে পুরো বিশ্ব জুড়ে পালন করা হয় নববর্ষের উৎসব। ঘড়ির কাঁটায় ঠিক বারোটা বাজার সঙ্গে সঙ্গে সুর ও সঙ্গীতের মূর্ছণায় মুখরিত হয়ে ওঠে চারপাশ। আতশবাজির আলোকছঁটায় ছেয়ে যায় আকাশ। শুরু হয় প্রিয়জনদের শুভেচ্ছা বার্তা পাঠানো। একে অপরকে উপহার আদান প্রদানের মাধ্যমে বরণ করে নেওয়া হয় নতুন বছরকে। বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই পালন করা হয়ে থাকে ইংরেজী নববর্ষ। তাই ৩১ ডিসেম্বর রাত ১২ টা বাজার সঙ্গে সঙ্গেই সমম্বরে চিৎকার করে ওঠে সবাই বলে হ্যাপি নিউ ইয়ার!

বিশ্ববাসীর পাশাপাশি বাংলাদেশের মানুষও একত্মতা ঘোষণা করে বরণ করে নেয় দিনটিকে।
আমাদের দেশে প্রিয়জনকে ফুল, মিষ্টি, নানা ধরণের গিফট আর কার্ড প্রদান করে নতুন বছরকে উইশ করা হয়। এ ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকে তরুণ-তরুণীরা।

এছাড়া আয়োজন করা হয় নানা অনুষ্ঠানের। গান, নাচ, আলাপ-চারিতা, উপহার আদান প্রদান আর বাহারী পোশাক পরে ঘুরে বেড়ানোই মুখ্য বিষয় হয়ে উঠে দিনটিকে কেন্দ্র করে।
নতুন বছর শুভ হোক, পরিবার-পরিজন নিয়ে সবাই ভাল থাকুক, নতুন বছরের প্রতিটি দিন হোক আনন্দময় এটাই প্রত্যাশা মাওলার দরবারে এলাহী শানে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000