সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
এনটিভির ২০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খাবার বিতরণ ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদানবিশ্বনাথে বন্যার্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার এান ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন নুনু মিয়ারাজনগরে কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও কৃষি অফিসারের কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধনবিশ্বনাথে থানা পুলিশের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণছাতকে ইমাম মোয়াজ্জিন গণকে খাদ্য সামগ্রী উপহার দিলেন সাহেলবিশ্বনাথে ‘বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের’ নগদ অর্থ বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে ইউনিয়ন বিএনপির কার্যালয় উদ্বোধনবালাগঞ্জে সালমান আহমেদের পরিবারের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণবিশ্বনাথে এক শিক্ষককে প্রাণ নাশের হুমকি দেওয়ায় থানায় সাধারণ ডায়েরীউপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান বকশীগঞ্জের আলহাজ গাজী আমানুজ্জামান মডার্ন কলেজ

বিশ্বনাথে ডাবল মাডারের মামলায় ১ জনের মৃত্যুদন্ড, ১২ জনের সাজা

ফারুক আহমদ, স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ জুন, ২০২২
  • ৩২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সিলেটের বিশ্বনাথে ডাবল মাডারের মামলায় ১ জনের মৃত্যুদন্ড, ১২ জনের সাজা, দুই মামলায় খালাস পেলেন অ্যাডভোকেট সিরাজসহ ৪২।



২০১২ সালের ৮ অক্টোবর বিশ্বনাথ উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের সিংগেরকাছ বাজারে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষ ও ডাবল মাডারের ঘটনায় দায়েরকৃত দুই মামলায় ১ জনের মৃত্যুদন্ড, ১২ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম সিরাজসহ ৪২ জনকে বেকুসুর খালাস দিয়ে রায় দিয়েছেন আদালত।

দীর্ঘ প্রায় ১০ বছর মামলা বিচারাধীন থানার পর বৃহস্পতিবার (৯ জুন) সিলেটের অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক মো. ইব্রাহিম আলী ওই মামলা দুটির রায় ঘোষণা করেন।

উপজেলার সিংগেরকাছ বাজারে পূর্ব বিরোধের জের ধরে ২০১২ সালের ৮ অক্টোবর দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত হন সিংগেরকাছ (পশ্চিমগাঁও) গ্রামের আব্দুর নূর ও আব্দুল খালিক। ঘটনার পর নিহত আব্দুল খালিকের পুত্র নূর উদ্দিন বাদী হয়ে প্রতিপক্ষের ৪৩ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন (বিশ্বনাথ জিআর মামলা নং ১৭৪/২০১২ইং)।

অপর দিকে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রতিপক্ষের আজমান আলী বাদী হয়ে আরেকটি মামলা দায়ের করেন (বিশ্বনাথ জিআর মামলা নং ১৭৮/২০১২ইং)।

মাডারের ঘটনায় নূর উদ্দিনের দায়েরকৃত মামলায় উপজেলার সিংগেরকাছ (পশ্চিমগাঁও) গ্রামের মৃত ইন্তাজ আলীর পুত্র অভিযুক্ত আব্দুল কাদিরকে মৃত্যুদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড, একই গ্রামের মৃত সমুজ আলীর পুত্র আব্দুল মনাফ, তার পুত্র সুহেল ও মৃত আছদ্দর আলীর পুত্র ইলিয়াছ আলীকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ১ লক্ষ টাকা করে অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরও ২ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড, দশঘর গ্রামের মৃত ওয়াছিদ উল্লাহর পুত্র ধন মিয়াকে ৩ বছরের কারাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরও ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং সিঙ্গেরকাছ (পশ্চিমগাঁও) গ্রামের মৃত তেরাব আলীর পুত্র আব্দুল মতিন, মৃত আরব আলীর পুত্র ইসলাম উদ্দিন, মৃত ইউনুছ আলীর পুত্র আলম, ইজার আলীর পুত্র রেজাউল করিম ও ছাতক উপজেলার কাদিপুর গ্রামের গেদু মিয়ার পুত্র রুবেলকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন আদালত।

অপর দিকে সংঘর্ষের ঘটনায় আজমান আলী বাদী হয়ে দায়েরকৃত মামলায় নূর উদ্দিন পক্ষের সিঙ্গেরকাছ (পশ্চিমগাঁও) গ্রামের মৃত রাশিদ আলীর পুত্র দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবারক আলী এবং একই গ্রামের মৃত মদরিছ আলীর পুত্র আকবর আলীকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড, অনাদায়ের ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছেন আদালত।

রায় ঘোষণার পর আদালত সাজাপ্রাপ্ত আসামী আব্দুল মনাফ, ধন মিয়া, আব্দুল মতিন, রুবেল, আবারক আলী ও আকবর আলীকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামী আব্দুল কাদির এবং সাজাপ্রাপ্ত আসামী সুহেল, ইলিয়াছ আলী, ইসলাম উদ্দিন, আলম, রেজাউল করিম পলাতক রয়েছেন।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000