বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
রাজনগরের জোড়া খুনের ৫আসামী গ্রেফতারবকশীগঞ্জে বিনামূল্যে সার ও মাসকালাই বীজ বিতরণরাজনগরের সোনাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হলেন সাংবাদিক আব্দুল হাকিম রাজসৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে আল্ট্রা সনোগ্রাম মেশিন থাকলেও সেবা থেকে বঞ্চিত রোগীরাবিশ্বনাথ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে সিভি জমা দিলেন ১০ আ’লীগ নেতাবিশ্বনাথ পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী মো. দবির মিয়া সকলের দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেনসিলেট-সুনামগঞ্জ মহা সরক দূর্ঘটনায় নিহত ১ আহত ২শান্তিগঞ্জে জামায়াতের পক্ষ থেকে নতুন ঘর প্রদানরাজনগরে জমি সংক্রান্ত বিরোধে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২ জন নিহত,আহত ৪চরগরবদি চরাঞ্চলে লাঠিয়াল বাহিনীর তান্ডব, ৫ একর জমির রোপা আমনের ক্ষেত বিনস্ট

বিশ্বনাথে চার দিন ধরে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ মিললো সুরমা নদীতে

রিপোটারের নাম
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১
  • ৩৩১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ফারুক আহমদ: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজী রাজাপুর থেকে নিখোঁজের চার দিন পরে মালেক মিয়া (৬৩) ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
উদ্ধারের সময় লাশটি সুরমা নদীতে উপুর হয়ে ভাসমান ছিল।

রোববার ৪ঠা জুলাই বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়ন’র সুরমা নদীর দক্ষিন পারে আতাপুর’র ডর থেকে লাশটি উদ্ধার করে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ।
মালেক মিয়া (৬৩) (বর্তমান ঠিকানা) উপজেলার রাজাপুর গ্রামে। তার পিতার নাম মৃত জয়দুল্লা। তিনি স্হানীয় একটি বাজারে স্ব-মিলে কাজ করতেন।

থানা-পুলিশ স্হানীয় ও নিহতের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়। গত ৩০ জুন বিকাল ৫ ঘটিকার সময় বাড়ী থেকে বের হয়ে আর ফেরেননি মালেক মিয়া।
তার খোঁজ খবর না পাওয়ায় পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় ২ জুলাই একটি সাধারন ডায়েরী (জিডি) করা হয়। ডায়েরী নং ৬৫/ ০২-০৭-২১।

আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০ ঘটিকায় সুরমা নদীতে লাশ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পান স্থানীয়রা।
পরে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেন। তাৎক্ষনিকভাবে খবর পেয়ে বিশ্বনাথ থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করে।

সুরমা নদী থেকে লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) গাজী আতাউর রহমান জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার লামাকাজী এলাকাস্থ সুরমা নদীতে নৌকার উপর আব্দুল মালেকসহ কয়েকজন জুয়া খেলছিলো।
এসময় গ্রামের লোকজন গরু চোর সন্দেহে চিৎকার করলে গ্রাম ও এলাকাবাসী বেরিয়ে আসলে অন্যরা নদী সাঁতার কেটে পালিয়ে গেলেও আব্দুল মালেক পানিতে তলিয়ে মারা যায়। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। তবে নিহতের শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন পাওয়া যায়নি বলে জানান।

নদী থেকো লাশ উত্তোলনের সময় উপস্হিত ছিলেন এডিশনাল এসপি মিয়া মো. আশিস বিন হাসান, তদন্ত কর্মকর্তা রমা প্রসাদ চক্রবর্তী, থানার সেকেন্ড অফিসার অরুপ সাগর, স্হানীয় চেয়ারম্যান কবির হোসেন ধলা মিয়া, এস আই গোপেশ চন্দ্র, ফখরুল ইসলাম, ডিএসপি সবুজ, মেম্বার নুরুজ্জামানসহ এলাকার শতাধিক লোক।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000