শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:০৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বকশীগঞ্জে সাংবাদিকদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের নবাগত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মতবিনিময়সৈয়দপুরে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেল ইজিবাইক চালকের ছেলে নয়ননীলফামারীর সৈয়দপুর ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের শরীর তিন খন্ডদুমকিতে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের আনন্দ শোভাযাত্রানীলফামারীর সৈয়দপুরে ৫ টি দোকান আগুনে পুড়ে ছাই, ২০ লাখ টাকার ক্ষতিওসমানীনগরে বাড়ির উঠান দিয়ে রাস্তা নিতে প্রতিবন্ধি পরিবারে হামলানীলফামারীর সৈয়দপুরে থানা ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠিতছাত্রদল নেতা নয়ন হত্যার প্রতিবাদে সৈয়দপুরে বিএনপি বিক্ষোভ সমাবেশওসমানীনগরে কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণবালাগঞ্জে ফ্রান্স প্রবাসী কমিউনিটি নেতা সুমন এর পিতৃবিয়োগ

বিশ্বনাথে ঘর নির্মাণে ভাতিজাদের বাঁধা প্রদানের অভিযোগে চাচার লিখিত অভিযোগ

ফারুক আহমেদ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ১৪৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার দশঘর ইউনিয়নের বাইশঘর গ্রামে আপন চাচাকে বসতঘর নির্মাণ কাজে ভাতিজারা বাঁধা দিচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া ভাতিজারা চাচা নাজিম উল্লাহ (৭৫)’র বিরুদ্ধে আদালতে মামলাও করেছেন বলে জানা গেছে।



এব্যাপারে প্রতিকার ও আইনী সহযোগীতা চেয়ে ভাতিজাদের অভিযুক্ত করে বৃহস্পতিবার (১০ ফেব্রুয়ারী) সিলেটের পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন চাচা নাজিম উল্লাহ।
 
বাইশঘর গ্রামের মৃত মদরিছ আলীর পুত্র নাজিম উল্লাহর দায়ের করা লিখিত অভিযোগপত্রের অভিযুক্তরা হলেন- নাজিম উল্লাহর আপন ভাই মৃত রাজিদ উল্লাহর পুত্র সমশের আহমদ সুমন (৩৫), মশাহিদ মিয়া (৩৭) ও অপর ভাই আজিদ উল্লাহর পুত্র রিপন মিয়া (৪০)।
লিখিত অভিযোগে নাজিম উল্লাহ উল্লেখ করেছেন, পৈতৃক সম্পত্তি একত্রে থাকায় মৌখিকভাবে ভাগবাটোয়ারার মাধ্যমে ভোগদখল করছেন তারা (ভাইয়েরা ও তাদের সন্তানরা)।

এরই প্রেক্ষিতে চলতি বছরের ৫ জানুয়ারী উভয় পক্ষ বৈঠকের মাধ্যমে চান্দভরাং মৌজার ১০৩নং জেএলের ৬৮নং বিএস খতিয়ানের ১০৯১ ও ১০৯৮নং দাগের ৩৮ শতক জায়গায় বসত ঘর নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ভাতিজারা তাদের চাচা নাজিম উল্লাহকে ওই জায়গাও নির্ধারণ করে দেন। এরপর সেখানে পাকা দালান ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। কিন্তু এর ১৯দিন পর ঘরে টিন লাগানোর সময় হঠাৎ ভাতিজারা তাকে (চাচাকে) ঘর নির্মাণে বাঁধা দেন ও সিলেট আদালতে মামলা করেন।

গত ২৪ জানুয়ারী ওই তিন ভাতিজা বাদী হয়ে সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি আইনের ১৪৪ ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৫/২০২২ইং। পরবর্তিতে এনিয়ে গ্রামের পঞ্চায়েগণের উপস্থিতিতে দু’বার সালিশ বৈঠক করা হয়।

সর্বশেষ গত বুধবার (০৯ ফেব্রæয়ারি) পঞ্চায়েতের রায় না মানার সিদ্বান্ত জানানোর পর নিরুপায় হয়ে পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ভোক্তভ‚গী নাজিম উদ্দিন। পুলিশী সহযোগীতা চেয়ে তিনি বলেন, জায়গা নির্ধারণ করে দিয়ে ঘর উঠানোর পর সেই ভাতিজারাই আবার ঘরের নির্মাণ কাজে বাঁধা এবং মিথ্যা মামলা করেছেন।
অভিযুক্ত ভাতিজা সমশের আহমদ সুমন ও রিপন মিয়া বলেন, যে শর্তে বাটোয়ারা করা হয়েছিল তা চাচা পূরণ না করায় নির্মাণকাজে বাঁধা দিয়েছেন তারা।

গ্রামের সালিশ ব্যক্তিত্ব হাজী রুশমত আলী, তজম্মুল আলী ও সমুজ মিয়া বলেন, পঞ্চায়েতের কথা সমসের গংরা না মানায় দীর্ঘ চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন তারা (সালিশী ব্যক্তিরা)।

এব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) গাজী আতাউর রহমান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে এব্যাপারে যতটুকু সহযোগীতা প্রয়োজন পুলিশের পক্ষ থেকে করা হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000