মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১০:১৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
নীলফামারীর সৈয়দপুরে ১০০ শয্যা হাসপাতালের এ্যাম্বুলেন্স দুইটিই রোগাক্রান্ত, চিকিৎসার উদ্যোগ নেইশাবির ঘটনায় পটুয়াখালীর দুমকিতে ছাত্রদলের প্রতিকী অনশনআন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আর্থিক লেনদেনের ছয়টি অ্যাকাউন্ট বন্ধের অভিযোগবিশ্বনাথের লামাকাজীতে ‘ঘোড়া’ প্রতিকের নির্বাচনী মিছিল ও সভাদুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে পটুয়াখালীতে বহুযাত্রী আহতসিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা চেয়ারম্যান নুনু মিয়া’র মা গুরুতর অসুস্হ, দোয়ার আরজিবিশ্বনাথে নির্বাচনী আচরণবিধি অবহিতকরণ ও মতবিনিময় সভাসিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভাকরোনায় আক্রান্ত ছাতকের ইউএনওসিলেটের বিশ্বনাথে টমটম চালককে চুরিকাঘাত করে গাড়ী ও মোবাইল ফোন ছিনতাই

বিশ্বনাথের ছরকুম আলী দয়াল হত্যা- পুনঃ তদন্তে পিবিআই

এস.পি.সেবু, বিশেষ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৩৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারি সিলেটের বিশ্বনাথের দৌলতপুর ইউনিয়নের চৈতননগর এলাকায় চাউলধনী হাওরে নিজ কৃষি ক্ষেতে পানি সেচ নিয়ে লন্ডনি সাইফুলের বন্দুকের আঘাতে নির্মমভাবে খুন হয় কৃষক ছরকুম আলী দয়াল।

আহত হয় আরো কয়েকজন। এ ঘটনায় ২ ফেব্রুয়ারি নিহত দয়ালের ভাতিজা আহমদ আলী বাদি হয়ে ১৭জনকে আসামি করে বিশ্বনাথ থানায় একটি হত্যা (বিশ্বনাথ জিআর মামলা নং-৩৫/২১ইং) মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর আসামিরা উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে থানা পুলিশের সাবেক ওসি ও এক এসআই’র ছলা পরামর্শে অর্থের বিনিময়ে ১৭ আসামির মধ্যে ৫জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল বরেন।

বাদি পক্ষ থানা পুলিশের এই চার্জশীটের উপর নারাজি প্রধান করলে আদালত মামটি পূণ:তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরোঅব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআইতে) দাখিল করেন। গতকাল রবিবার বিকেলে পিবিআইয়ের একটি তদন্ত টিম সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার চৈতন নগর গ্রামের দলায় হত্যার ঘটনাস্থল পরিদশর্ন করেন।

এসময় পিবিআই’র কর্মকর্তারা এলাকার বেশ কিছু লোকজনের কাছ থেকে দয়াল হত্যা সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। বিশ্বনাথের চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা নিয়ে নানা আন্দোলন, সভা সমাবেশ অব্যাহত রয়েছে।

মামলার বাদি আহমদ আলী বলেন, ভুমি খেঁকো অস্ত্রবাজ, খুনি সাইফুল ও তার অস্ত্র বাহিনীর যন্ত্রনায় অতিষ্ট এই এলাকার ২৫ গ্রামের কৃষকরা। তার বন্দুকের আঘাতে নির্মমভাবে খুন হন আমার চাচা কৃষক ছরকুম আলী দয়াল। কিন্তু থানার সাবেক ওসি শামিম মুসা ও এসআই ফজলু আসামিদের কাছ থেকে বিপুল পরিমান অর্থের বিনিময়ে ১২জন আসামিকে বাদ দিয়ে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেছেন। আমরা এই চার্জশীটের বিরুদ্ধে আদালতে নারাজি দিয়েছি। আদালত আমাদের নারাজি গ্রহণ করে পূণ:তদন্তের জন্য পিবিআইতে প্রেরণ করা হয়েছে। পিবিআই’র উর্ধতন কর্মকর্তার নিকট আমাদের আবেদন। আমরা গরিব মানুষ, কৃষি কাজ করে ভাত খাই। আমরা যেনো সঠিক বিচার পাই।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000