বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৫:১৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে দুর্গত মানুষের মধ্যে এলবিএইচএইচ পক্ষ হতে নগদ অর্থ বিতরণবিশ্বনাথে বন্যার্তদের ঈদ উপহার দিয়ে যাত্রা শুরু করল সৈয়দবাড়ি ফাউন্ডেশনবিশ্বনাথ উন্নয়ন সংস্থা ইউকের আর্থিক সহযোগিতা পেলেন ২ শতাধিক বন্যার্তনীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার ৪৬২১ জনের মাঝে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ করলেন মেয়র রাফিকাবালাগঞ্জে কন্ঠ শিল্পী বন্যা তালুকদারের পক্ষ থেকে ত্রান সামগ্রী বিতরণবিশ্বনাথে বিভিন্ন স্থানে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করলেন এসএম নুনু মিয়াবিশ্বনাথে বন্যার্তদের মাঝে বেইত আল-খাইর সোসাইটি’র খাদ্যসামগ্রী বিতরণবিশ্বনাথে আশ্রয়ণ প্রকল্পে এসএম নুনু মিয়ার এান ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণসাংসদ আদেলের বরাদ্দে খাতামধুপুরের সুতারপাড়াবাসী পেলো হেরিং বোন রাস্তারাজনগরে ভোটার তালিকা হালনাগাদ সমন্বয় কমিটির সভা

বিরল রোগে আক্রান্ত জিল্লু মিয়ার চিকিৎসার অর্থ সংগ্রহের লক্ষ্যে বিশ্বনাথে মতবিনিময়

ফারুক আহমদ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১২ আগস্ট, ২০২১
  • ২৫২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বিরল রোগ ‘নিউরোফাইব্রোমাটোসিসে’ আক্রান্ত সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার দিনমজুর জিল্লু মিয়ার চিকিৎসা বন্ধ রয়েছে টাকার অভাবে। দিন মজুর জিল্লু মিয়ার চিকিৎসার অর্থ সংগ্রহের লক্ষ্যে প্রবাসী, জনপ্রতিনিধি ও কয়েকজন মানবিক মানুষের উদ্যোগে মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েথে।

আজ বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) দুপুরে খাজাঞ্চি ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে উপজেলার কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন ২নং খাজাঞ্চি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তালুকদার মো. গিয়াস উদ্দিন। এসময় তাঁর চিকিৎসায় দেশ বিদেশের সকলের কাছে সাহায্য সহযোগিতা চেয়েছেন দিনমজুর জিল্লু মিয়া।

জিল্লু মিয়া সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চি ইউনিয়নের পাকিছিরি গ্রামের সাদেক আলীর ছেলে। তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ২০ লক্ষ টাকা। নতুন করে তাঁর চিকিৎসার উদ্যোগ নিয়েছেন কয়েকজন প্রবাসীসহ উপজেলার জনপ্রতিনিধি ও কয়েকজন মানবিক মানুষ।
জিল্লু মিয়া সাংবাদিকদের জানান, ৯ বছর বয়সে তিনি এ রোগে আক্রান্ত হন। ধীরে ধীরে মুখে ও শরীরের বিভিন্ন অংশে এ রোগ ছড়িয়ে পড়ে। এখন এই রোগ তার ডান চোখও ঢেকে ফেলেছে। এছাড়া তার ৪ সন্তানের মধ্যে ১ ছেলে ও এক মেয়ের শরীরেও এই বিরল রোগ বাসা বেঁধেছে।

উদ্যোক্তারা সাংবাদিকদের জানান, দিনমজুর জিল্লু মিয়ার মাথা ও মুখের ডান দিকের পুরো অংশ জুড়ে অদ্ভুত রকমের ঝুলন্ত মাংসপিন্ডে আর সারা শরীরে ছোট বড় অসংখ্য গোটা রয়েছে। এ অবস্থায় দীর্ঘদিন ধরে দুর্বিষহ মানবেতর জীবন যাপন করছেন তিনি। উপজেলার সামান্য ভিটে ছাড়া সহায় সম্বল কিছু না থাকায় অর্থাভাবে করাতে পারছেন না চিকিৎসাও।

বৈবাহিক জীবনে চার সন্তানের জনক তিনি। অন্যের কাজ করে রোজগার করা অর্থ ও সরকার থেকে পাওয়া প্রতিবন্ধি ভাতা দিয়েই টেনেটুনে সংসার চালাতে হয় তাকে। তার চিকিৎসার উদ্যোগ নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ডা. আতাউর রহমান, যুক্তরাজ্য প্রবাসী লোকমান আহমদ, আলমাছ আলী, জুনাব আলীসহ কয়েকজন প্রবাসী। তারা আরও জানান, জিল্লু মিয়ার ভারতে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা। এরমধ্যে ১ লক্ষ টাকা যৌথ একাউন্টে জমা হয়েছে। আর প্রায় ৪ লক্ষ টাকার প্রতিশ্রুতি এসেছে।

আরও প্রয়োজন ২০ লক্ষ টাকা। এজন্য প্রবাসীসহ উপজেলার বিত্তবানদের কাছে তারা সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। এজন্য জিল্লু মিয়ার বিকাশ একাউন্ট ‘০১৭২৯৬৮৪৪০৩’ ও ব্যাংক একাউন্ট ২০৫০৭৭৭০২০১১৩৮৫৭৩ (ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং, লামাকাজি) দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে খাজাঞ্চি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও চিকিৎসার অন্যতম উদ্যোক্তা তালুকদার মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, জিল্লু মিয়ার চিকিৎসার জন্যে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসা উচিত। বিত্তবানদের আর্থিক সহযোগিতাই পারে জিলু মিয়াকে সুস্থ্য স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে।

চিকিৎসার অন্যতম উদ্যোক্তা সাংবাদিক আব্বাস হোসেন ইমরানের পরিচালনায় সভায় আরও চিকিৎসার বিস্তারিত বিষয়ে বক্তব্য রাখেন, তাহির আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক আজম আলী, পশ্চিম দর্শা দাখিল মাদরাসার শিক্ষক ও পাকিছিরি গ্রামের বাসিন্দা মাওলানা ফয়েজ আহমদ তাজির, অলংকারি-পৌদনাপুর হাফিজিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আজিজুর রহমান, বৃহত্তর প্রিতীগন্জ বাজার আনজুমানে আশিকানে মুস্তফা সা: পরিষদের সভাপতি মাওলানা আব্দুল করিম, পাকিছিরি গ্রামের মো. ফেরদৌস মিয়া।

 

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000