শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১০:৫৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
রাজনগরে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে সিএইচসিপিকে হত্যার হুমকির অভিযোগসৈয়দপুর বিমানবন্দরে সাফজয়ী তিন ফুটবলারকে সংবর্ধনাবকশীগঞ্জে ১৩ টি পূজা মন্ডপে উপজেলা চেয়ারম্যানের আর্থিক অনুদান বিতরণনবীগঞ্জে হামিদুর রহমান হিলালের দ্বিতীয় বইয়ের মোড়ক উন্মোচনপটুয়াখালীতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর জন্মদিন পালিতদুমকিতে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভারাজনগরের জোড়া খুনের ৫আসামী গ্রেফতারবকশীগঞ্জে বিনামূল্যে সার ও মাসকালাই বীজ বিতরণরাজনগরের সোনাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হলেন সাংবাদিক আব্দুল হাকিম রাজসৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে আল্ট্রা সনোগ্রাম মেশিন থাকলেও সেবা থেকে বঞ্চিত রোগীরা

বান্দরবানে শিশু সন্তানদের ঘরে তালাবদ্ধ করে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১৫২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

প্রবাসীর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে বান্দরবানের লামায় গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষকরা এ সময় ওই নারীর দুই শিশু সন্তানকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে। এ ছাড়া ওই নারীকে মারধরের অভিযোগও করা হয়েছে।



গত বুধবার (২২ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে উপজেলার রূপসীপাড়া ইউনিয়নের বৈদ্যভিটা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

জানা গেছে, ভুক্তভোগী নারী তার দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে নিজ বাড়িতে একা থাকতেন। বুধবার দিনগত রাত আনুমানিক ২টার দিকে শৌচাগারে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হন ওই নারী।
সেসময় আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা তার মুখ চেপে ধরে এবং তার দুই শিশুকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে। পরে ওই নারীকে সারা রাত গণধর্ষণ ও মারধর করা হয়। ধর্ষণের পর দুর্বৃত্তরা বাড়ির আলমারি ভেঙে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ গৃহবধূর।

পরে বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) সকালে প্রতিবেশী এক নারী ওই বাড়িতে পানি আনতে গেলে ঘরের জানালা দিয়ে দুই শিশুকে কান্না করতে দেখেন। তিনি এগিয়ে গেলে প্রবাসীর স্ত্রীকে বাড়ির পেছনে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় দেখতে পান। পরে জানাজানি হলে স্বজন ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় ওই নারীকে উদ্ধার করে।

লামা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোল্লা রমিজ জাহান জুম্মা জানান, ভিকটিমকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালের ওয়ান স্টপ সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

একই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ঘটনাটির তদন্ত চলছে। দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতিও চলছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000