সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৭:০১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
এনটিভির ২০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খাবার বিতরণ ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদানবিশ্বনাথে বন্যার্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার এান ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন নুনু মিয়ারাজনগরে কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও কৃষি অফিসারের কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধনবিশ্বনাথে থানা পুলিশের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণছাতকে ইমাম মোয়াজ্জিন গণকে খাদ্য সামগ্রী উপহার দিলেন সাহেলবিশ্বনাথে ‘বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের’ নগদ অর্থ বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে ইউনিয়ন বিএনপির কার্যালয় উদ্বোধনবালাগঞ্জে সালমান আহমেদের পরিবারের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণবিশ্বনাথে এক শিক্ষককে প্রাণ নাশের হুমকি দেওয়ায় থানায় সাধারণ ডায়েরীউপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান বকশীগঞ্জের আলহাজ গাজী আমানুজ্জামান মডার্ন কলেজ

ফের দাম বাড়লো পেঁয়াজসহ অন্যান্য পণ্যের, কেজি প্রতি ২০ টাকা

রিপোটারের নাম
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৫ জুন, ২০২১
  • ২৪৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্টঃ পেঁয়াজ নিয়ে আবার হুলস্থুল কাণ্ড। তিন দিনে বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ২০ টাকা। ৪০ টাকার পেঁয়াজ এখন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। বেড়েছে চাল, ডাল, আটা, ময়দা ও রসুনের দামও। সপ্তাহ খানেক আগে ভোজ্যতেলের দাম যে বেড়েছে ওই অবস্থায়ই এখনো আছে। বাজার ঘুরে দেখা গেছে গরুর গোশতের দামও বেড়েছে কেজিতে ৪০ টাকা। তবে সবজির দাম আগের তুলনায় কিছুটা কমেছে। প্রায় সব সবজিই এখন ৪০ টাকার মধ্যে রয়েছে।

গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে পেঁয়াজের দাম আবার উপরে উঠছে। দিন যত যাচ্ছে ততই বাড়ছে দাম। গত তিন দিনে বেড়েছে ২০ টাকা। অবশ্য নিম্ন মানের পেঁয়াজ ৫ টাকা কমে পাওয়া যাচ্ছে। এক ক্রেতা গতকাল মানিকনগর এলাকায় পেঁয়াজ কেনার সময় বলেন, তিন দিন আগেও তিনি ৪০ টাকায় পেঁয়াজ কিনেছেন। এখন সেই পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে ৬০ টাকায়। এই ক্রেতা বলেন, পেঁয়াজের দাম কী কারণে বাড়ল তা তার বোধগম্য নয়। পেঁয়াজ তোলার মৌসুমতো কেবল শেষ হলো। মানিকনগরের একাধিক পেঁয়াজ বিক্রেতা গতকাল বলেন, পাইকারিতেই তাদের বেশি দাম দিতে হচ্ছে। যে কারণে তাদের বেশি দামে বিক্রি করতে হয়। টঙ্গীর এক আড়তদার বলেন, কৃষকের কাছ থেকেই তাদের বেশি দামে পেঁয়াজ সংগ্রহ করতে হচ্ছে। কৃষক কম কম পেঁয়াজ বিক্রি করছে, যে কারণে বাজারে চাহিদা বেশি, দাম চড়া। অপর দিকে সীমান্তে লকডাউনের কারণেও চাহিদা মতো পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে না বলে ওই ব্যবসায়ী জানান। পাইকারি বাজারে গতকাল ৪৬ টাকায় পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হয়েছে বলে ওই ব্যবসায়ী জানান।

রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, চিকন, মাঝারি ও মোটা সব ধরনের চালের দাম গত তিন দিনের ব্যবধানে আরো বেড়েছে। কেজিতে ১ থেকে ২ টাকা বেড়ে গেছে বলে ব্যবসায়ীরা উল্লেখ করেন। দাম বেড়ে চিকন চাল এখন বিক্রি হচ্ছে ৬২ থেকে ৬৬ টাকায়, যা দুই দিন আগেও ৬০ থেকে ৬৪ টাকার মধ্যে পাওয়া গেছে। মোটা চালের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ টাকায়, যা আগে ছিল ৪৮ থেকে ৫০ টাকার মধ্যে। চালের পাশাপাশি দাম বেড়েছে আটা ও ময়দার দাম। ৩২ থেকে ৩৪ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া এক প্যাকেট আটার দাম বেড়ে এখন ৩৪ থেকে ৩৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর প্যাকেট ময়দার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪৪ থেকে ৪৬ টাকায়, যা আগে ছিল ৪২ থেকে ৪৪ টাকার মধ্যে।

গরুর গোশত কেজিতে বেড়েছে ৪০ টাকা। যে গোশতের কেজি ছিল ৫৬০ টাকা। তা এখন কিনতে হচ্ছে ৬০০ টাকায়।
তবে সবজিতে স্বস্তি আছে। সবজির দাম কিছুটা কমেছে। যে সবজির কেজি গত সপ্তাহে ৫০ টাকা ছিল তা এখন ৪০ টাকায় কেনা যাচ্ছে। তবে এই দামও সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে বলে অনেকে মন্তব্য করেছেন। কাইউম নামের এক ক্রেতা গতকাল মানিকনগরে বলেন, কোনো সবজি ৪০ টাকার নিচে নেই। আগের চেয়ে কিছুটা দাম কমলেও এখনো তা সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে নয় বলে ওই ক্রেতা উল্লেখ করেন। তবে টমেটোতে বেড়েছে আরো ১০ টাকা।

গতকাল বাজার ঘুরে দেখা গেছে ঢেঁড়শ, পটোল, কাকরোল, বেগুনসহ প্রায় সব সবজিই ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর ভালো মানের টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৫৫ থেকে ৬০ টাকা। নিম্নমানের টমেটো ৫০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। তবে কাঁচামরিচের দাম এখন সবচেয়ে কম। গতকাল কাঁচামরিচের কেজি ৩০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000