মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ফ্রান্সে শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপনবাকোডিসির পক্ষ থেকে সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে বাড়ি নির্মান ও গবাদিপশু বিতরণদূর্গাপূজা হিন্দু ধর্মাবলম্বী এক হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন সৈয়দপুর পৌর মেয়েরপরারাষ্ট্র মন্ত্রীর সাথে যুক্তরাষ্ট্রে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়বকশীগঞ্জে ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনআন্তর্জাতিক অহিংস দিবস উপলক্ষ্যে বিশ্বনাথে পিএফজির মানববন্ধনওসমানীনগরে ঢেউটিন ও নগদ অর্থ বিতরণওসমানীনগরের রাসেল সিলেট ল কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনোনীতইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান -২০২২ জনসচেতনতামৃলক সভাদুর্গাপুজা উপলক্ষে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের সাইবার সেল ও মনিটরিং সেল গঠন

প্রতিপক্ষের হামলায় বিশ্বনাথে কৃষক আহত: হাসপাতালে ভর্তি

ফারুক আহমদ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২১
  • ২৫৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সিলেটের বিশ্বনাথে আবদুল করিম (৪৭) নামে এক কৃষকের উপর প্রতিপক্ষের লোকজন হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার ২৮ আগস্ট বিকেলে উপজেলার দশঘর ইউনিয়নের নিহালের নোয়াগাঁও গ্রামে। হামলায় গুরুতর আহত কৃষক আবদুল করিমকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি নিহালের নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত আবদুল আজিজের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার ২৮ আগস্ট দুপুরে নিজের আমন ধানের ক্ষেত দেখতে গ্রামের পাশ্ববর্তী জমিতে যান কৃষক আবদুল করিম। এসময় একই গ্রামের মৃত ছিদ্দেক আলীর ছেলে মনির উদ্দিন আবদুল করিমের বিরুদ্ধে তার (মনির) আমন ধানের চারা নষ্ট করার অভিযোগ তুলে বাকবিতন্ডায় জড়ান। পরে তিনি মনিরের বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীর কাছে এ বিষয়ে নালিশ করে আসেন।

আহত কৃষক আবদুল করিম বলেন, ‘স্ত্রীর কাছে নালিশ দেওয়ায় আমার উপর প্রচন্ড ক্ষিপ্ত হন মনির উদ্দিন ও তার লোকজন। বিকেলে আমি বাড়ি থেকে দু’জন মেহমানের সাথে পীরের বাজারে যাওয়ার জন্যে রওয়ানা দেই।
এসময় আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে নিজেদের বাড়ির কাছে পূর্ব থেকে ওঁৎপেতে থাকা মনির উদ্দিন, তার ভাই কমর উদ্দিন, নুর উদ্দিন, মনিরের দুই ছেলে গিয়াস উদ্দিন, আক্তার উদ্দিন ও একই গ্রামের মৃত তফজ্জুল আলীর ছেলে আলা উদ্দিন তাদের বাড়ির কাছাকাছি যেতেই ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমার উপর হামলা চালায়। এসময় তারা আমার সাথে থাকা নগদ টাকা, মোবাইল সেট ও একটি টর্চ লাইট ছিনিয়ে নিয়ে যায়।’

আবদুল করিম আরও জানান, ‘স্থানীয় লোকজন আমাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হওয়ায় সেখান থেকে আমাকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়। আমি বর্তমানে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি আছি। হামলায় আমার ফেটে যাওয়া মাথায় ৯টি সেলাই দিয়েছেন ডাক্তাররা।’

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে যোগাযোগ করা হলে অভিযুক্ত মনির উদ্দিনের ছেলে জাকির সাংবাদিকদের বলেন, ‘সড়কের পাশে আমাদের আমন ধানের জমি। আবদুল করিম আমাদের ধানের চারা নষ্ট করায় আমার পিতা প্রতিবাদ করেন। এর জের ধরে বিকেলে তার সাথে আমাদের ঝগড়াঝাটি হয়।’

বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ গাজী আতাউর রহমান বলেন, ‘ঘটনাটি শোনেছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।’

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000