বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:১০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নবীগঞ্জে হামিদুর রহমান হিলালের দ্বিতীয় বইয়ের মোড়ক উন্মোচনপটুয়াখালীতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর জন্মদিন পালিতদুমকিতে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভারাজনগরের জোড়া খুনের ৫আসামী গ্রেফতারবকশীগঞ্জে বিনামূল্যে সার ও মাসকালাই বীজ বিতরণরাজনগরের সোনাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হলেন সাংবাদিক আব্দুল হাকিম রাজসৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে আল্ট্রা সনোগ্রাম মেশিন থাকলেও সেবা থেকে বঞ্চিত রোগীরাবিশ্বনাথ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে সিভি জমা দিলেন ১০ আ’লীগ নেতাবিশ্বনাথ পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী মো. দবির মিয়া সকলের দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেনসিলেট-সুনামগঞ্জ মহা সরক দূর্ঘটনায় নিহত ১ আহত ২

নীলফামারীর সৈয়দপুরের ছেলে আরাফাতের জাপান থেকে রোবোটিক্স বিষয়ে পিএইচডি অর্জন

মোঃজাকির হোসেন,নীলফামারী প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৮ আগস্ট, ২০২১
  • ৩৪০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

নীলফামারীর সৈয়দপুরের ছেলে মোক্তাদির আলম আরাফাত। কৃতি এই সন্তান নীলফামারীর সৈয়দপুর থেকে এই প্রথম জাপান থেকে রোবোটিক্স বিষয়ে পিএইচডি অর্জন করেছেন। মোক্তাদির আলম আরাফাত জাপানের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয় “হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়” থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেছেন।



আরাফাত সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা শাখার সাবেক উচ্চমান সহকারী মো. মোখলেছুর রহমানের বড় ছেলে এবং সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও আ’লীগের সভাপতি মোখছেদুল মোমিন, কৃষিবিদ আব্দুল মুবিন সরকার ও সহকারি অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমানের ভাতিজা। এর আগে আরাফাত সৈয়দপুর ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি ও এইচএসসিতে স্টার মার্কস নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিলেন। এর পর পর্যাক্রমে বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, জার্মানিসহ বিভিন্ন দেশে উচ্চ শিক্ষা অর্জন করার সূযোগ লাভ করেন। সবশেষে তিনি জাপানের হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রোবোটিক্স বিষয়ে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।
আরাফাত ২০১৮ সালে জাপান সরকারের মনবুকাগাসু স্কলারশিপ নিয়ে জাপান গমন করেন। তার গবেষণার মূল বিষয় ছিল “ইন্ডাস্ট্রিয়াল রোবটিক্স”। তিনি বর্তমানে স্ত্রী সন্তানসহ জাপানে অবস্থান করছেন। তার স্ত্রী তনুজা নাজমুলও পেশায় একজন ডাক্তার। ডাক্তার তনুজা বর্তমানে একই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাইরোলজি (ভাইরাস বিদ্যা) বিষয়ে পিএইচডি অর্জন করছেন এবং বর্তমান মহামারী করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করছেন।
মোক্তাদির আরাফাতের একমাত্র ছোট ভাই মুনতাসীর আহাদ ঢাকার ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে ইলেক্ট্রিক অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ৩য় বর্ষে অধ্যায়নরত।
সৈয়দপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের স্কুল শাখার গণিত বিষয়ক শিক্ষক মোস্তাকুল আমীন জানান, আরাফাত একজন অত্যন্ত ভদ্র এবং নম্র স্বভাবের ছাত্র ছিল। এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয় যে, আমাদের ছাত্র এতদূর পর্যন্ত যেতে পেরেছে। তার এই অর্জনে আমিও গর্ববোধ করছি।
সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন বলেন, আরাফাতের এই সাফল্যে পুরো পরিবার আমরা গর্ববোধ করছি তবে এই সাফল্য সৈয়দপুরবাসীর। কারন সৈয়দপুর থেকে এই প্রথম এই অর্জন। আরাফাত দেশে রোবট বিষয়ক গভেষনায় অগ্রণী ভূমিকা রাখতে চায়। আশাকরি, একদিন সে দেশের নাম, আমাদের সৈয়দপুরের নাম আরও উচুতে নিয়ে যাবে।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আগামী অক্টোবর মাসেই তিনি জাপানের একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে নিযুক্ত হবেন। তিনি সকল শিক্ষক,আত্নীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন ও দোয়া কামনা করেছেন এবং সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। আরাফাত আরো বলেছেন, কেউ যদি উচ্ চশিক্ষার জন্যে আগ্রহী হয়, তাহলে তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতার চেষ্টা করা হবে। এছাড়া তিনি দেশের রোবট বিষয়ক উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে চান।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000