বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বিশ্বনাথ উপজেলা আল ইসলাহ’র কমিটি: সভাপতি আখতার আলী সম্পাদক হাবিবজামালপুরের বকশীগঞ্জে দলিল লেখক সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিতদেবীদ্বার পৌর আওয়ামী লীগ নেতা মরহুম হাজী শহীদুল্লাহ খাজার জানাজা ও দাফন সম্পন্নকুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলা মহিলা শ্রমিক লীগের কমিটি ৩বছরের জন্য অনুমোদনদুমকিতে এইচ.এস.সি ও বি.এম পরীক্ষার প্রস্তুতিমূলক সভাফের গাজিপুরের এক গার্মেন্টসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাকিশোরগঞ্জে ভোটকেন্দ্রে বিজিবি সদস্য নিহতের ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দলের পরিদর্শনসৈয়দপুরে স্ত্রী হত্যাচেষ্টা মামলায় আ’লীগ নেতা জেল হাজতেবালাগঞ্জের কাশিপুর খালের ভাঙ্গন পরিদর্শন করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানসিটি কর্পোরেশন সহ সিলেটের ৩২টি অফিসের বিরুদ্ধে বেশি অভিযোগ দুদকের গণশুনানিতে

ধর্ষণের অভিযোগে সৈয়দপুরে পল্লী চিকিৎসক আটক

মোঃজাকির হোসেন,নীলফামারী প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বয়স পেরিয়ে গেলেও বিয়ে না করায় বাধ্য হয়ে পরিবারের লোকজন এক প্রকার জোর করেই বিয়ে দিয়েছেন।



কিন্তু সেই বিয়ের ৪ দিনের মাথায়ই জেলে যেতে হলো পল্লী চিকিৎসক বর কে। তাও আবার দশ বছর ধরে প্রেম করা প্রেমিকার করা ধর্ষণের মামলায়।

১ নভেম্বর সোমবার দুপুরে এমনই ঘটনা ঘটেছে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের ঘোড়াঘাট (গোলাহাট) রেলওয়ে কলোনী মসজিদ সংলগ্ন এলাকায়। আটক ব্যাক্তির নাম শাহিন আলী বাবু (৪০)। সে ওই এলাকার মৃৃত আজগার আলী।

মামলার বিবরণে জানা যায়, দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার থানাপাড়া এলাকার কাশেম আলীর মেয়ে মিনু (৩৫) স্বামীসহ বাস করতো সৈয়দপুরের ঢেলাপীর উত্তরা আবাসনে। ঘটনাক্রমে চিকিৎসা সূত্রে পরিচয় হয় পল্লী চিকিৎসক শাহিন বাবুর সাথে। ফার্মেসীতে যাতায়াতের ফলে বাবুর প্ররোচনায় উভয়ের মধ্যে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

সেই সুবাদে বাবুর বিয়ের আশ্বাসে ৭ বছর পূর্বে মিনু আগের স্বামীকে তালাক দেয়। এরপর বাবু তাকে ঢাকায় নিয়ে গিয়ে নিজে বাসা ভাড়া করে দিয়ে রেখে ভরণ পোষণসহ সার্বিক ব্যায় নির্বাহ করে আসছে।

বাবু মাঝে মাঝেই ঢাকায় গিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মতো থাকতো। মিনুও সৈয়দপুরে আসলে বাবুর বাড়িতেই অবস্থান করে। এভাবেই চলছিল তাদের সম্পর্ক। বিয়ের জন্য চাপ দিলেই সে আরও অপেক্ষা করতে বলে সময় ক্ষেপন করে আসছে।

এমতাবস্থায় হঠাৎ গত ২৮ অক্টোবর পারিবারিক ভাবে বাড়ির পাশেই বিয়ে করে বাবু। এই খবর পেয়ে ৩০ নভেম্বর মিনু সৈয়দপুরে এসে দেখে শহরের আধুনিক একটি কমিউনিটি সেন্টারে চলছে বাবুর বউভাত। এতে উপস্থিত হয়ে বাবুকে ডেকে নিয়ে মিনু তার সাথে প্রতারণার জবাব চাইলে বাবু বলে বিয়ে করলেও তোমার সাথে আগের মতই সম্পর্ক থাকবে।

এতে বাধ্য হয়ে মিনু সৈয়দপুর থানায় গিয়ে প্রতারণা ও বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের মামলা দায়ের করে। মামলা নং ২৮, তারিখ ৩০/১০/২০২১ ইং। এই মামলার প্রেক্ষিতে ১ নভেম্বর সোমবার দুপুরে এস আই তারেক মাহমুদ আসামীকে তার চেম্বার থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে পল্লী চিকিৎসক শাহীন আলী বাবু জানান, মহিলা আমার রুগী। সে স্বামী পরিত্যক্ত ও দরিদ্র অসহায় হওয়ায় প্রায়ই চিকিৎসার পাশাপাশি তাকে আর্থিক সহযোগীতা করতাম। ৭ বছর যাবত মোবাইলে কথা বলা ও দেখা করা ছাড়া অন্য কোন সম্পর্ক নেই। ধর্ষণের অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যে।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল হাসনাত জানান, মহিলার সাথে দীর্ঘ ৭ বছরের সম্পর্ক আটক পল্লী চিকিৎসকের। বাদীর উপযুক্ত তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আসামী আটক করে বিকালে নীলফামারী জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000