বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে ‘হাজী তেরা মিয়া ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট’র পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিতমৌলভীবাজার মুনিয়া নদী থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধারমৌলভীবাজারের রাজনগরে গ্রীল ভেঙে ঘরে ঢুকে গরু চুরিবিশ্বনাথে কলেজ ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী আহত : আটক ১বিশ্বনাথের খাজাঞ্চী ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ করলেন শফিক চৌধুরীনীলফামারীর সৈয়দপুরে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া কে হত্যার হুমকি প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভমৌলভীবাজারের রাজনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় ১জন নিহতবিশ্বনাথের রামপাশা ইউনিয়নে বন্যার্তদের মধ্যে অ্যাডভোকেট গিয়াসের চাল বিতরণরাজনগরে সম্পন্ন হলো অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ কর্মশালা

দুর্ভোগে দুমকি উপজেলাবাসী, সিভিল সার্জনের খামখেয়ালীপনায়

মোঃমিজানুর রহমান, পটুয়াখালী প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৭৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত এলাকাবাসী। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ে জনবল ঘাটতি থাকলেও গুরুত্ব দিচ্ছে না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।
জানা গেছে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শৈল্য বিশেষজ্ঞ, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ, আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার, মেডিক্যাল অফিসার, দন্ত চিকিৎসক, পরিসংখ্যান কর্মকর্তা, সিনিয়র স্টাফ নার্স, মিড ওয়াইফসহ ১৪জন ডাক্তার ও কর্মকর্তার পদ শূন্য থাকার কারণে স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ। এছাড়া বাকেরগঞ্জ উপজেলার নলুয়া, কলসকাঠী, লক্ষীপাশা ও কবাই ইউনিয়নের জনসাধারণও এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে চিকিৎসা নিচ্ছে। অ্যাম্বুলেন্সযোগে দুমকি হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগী সেবা না পেয়ে হাসপাতাল থেকে রেফার নিয়ে পটুয়াখালী অথবা বরিশালে যেতে হয়। সামান্যতম সেবা ছাড়া এখানে বড় কোনো ধরনের সেবা পাচ্ছে না।
এদিক, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘদিন ধরে এক্স-রে মেশিনসহ অন্যান্য ল্যাবে যন্ত্রপাতি থাকলেও নেই পরিচালনার জন্য প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত জনবল। যার ফলে চিকিৎসা সেবা সঠিকভাবে দিতে পারছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। দুমকিতে কোনো ভালো ল্যাব না থাকায় ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী পটুয়াখালী অথবা বরিশাল গিয়ে ল্যাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে রিপোর্ট নিয়ে আসতে হচ্ছে। উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মীর শহিদুল ইসলাম শাহীন বলেন, এরই মধ্যে গত ২৫ আগস্ট পটুয়াখালী সিভিল সার্জনের কাছে ডাক্তার ও নার্সদের কর্মরত ও শূন্য পদের চাহিদা প্রেরণ করা হয়েছে।
সিভিল সার্জন পটুয়াখালী ডা. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘অতি দ্রুত দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবল কাঠামো পূরণ হবে বলে আশা করছি।’

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000