বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০২:১০ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে ‘হাজী তেরা মিয়া ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট’র পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিতমৌলভীবাজার মুনিয়া নদী থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধারমৌলভীবাজারের রাজনগরে গ্রীল ভেঙে ঘরে ঢুকে গরু চুরিবিশ্বনাথে কলেজ ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী আহত : আটক ১বিশ্বনাথের খাজাঞ্চী ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ করলেন শফিক চৌধুরীনীলফামারীর সৈয়দপুরে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া কে হত্যার হুমকি প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভমৌলভীবাজারের রাজনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় ১জন নিহতবিশ্বনাথের রামপাশা ইউনিয়নে বন্যার্তদের মধ্যে অ্যাডভোকেট গিয়াসের চাল বিতরণরাজনগরে সম্পন্ন হলো অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ কর্মশালা

ঝিনাইগাতীর হাতিবান্ধা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আসলামের নির্বাচনী প্রচারনা শুরু

শেরপুর জেলা প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১১০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার হাতিবান্ধা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আসলাম আনারস প্রতিক পেয়ে নির্বাচনী প্রচারনায় মাঠে নেমেছেন।



২০ ডিসেম্বর প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়। আওয়ামী লীগ পরিবারের সদস্য আসলাম। আসলাম বলেন, তারা পুরোনো আওয়ামী লীগ। তার পিতা মরহুম সামছুল হক ও চাচা নুরুল আমিন দোলা ছিলেন হাতিবান্ধা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান। নুরুল আমিন দোলা ২০১৬ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

চেয়ারম্যান থাকাবস্তায় তার মৃত্যু হয়। কিন্ত দল তাদের মুল্যায়ন নাকে করে বিএনপি নেতাকে মনোনয়ন দেয়। তাই আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেন। আসলাম আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে আরো এক বছর আগে থেকে ভোটারদের সমর্থন আদায় ও দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড় ঝাপ শুরু করেছেন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ভোটার ও দলীয় নেতা-কর্মিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে জনসংযোগের পাশাপাশি দলীয় সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করে আসছিলেন। তিনি ঘাগড়া কোনাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্রলীগ করতেন। করোনা কালীন সময়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মেনে কর্মহীন অসহায় হতদরিদ্র মানুষের মাঝে মানবিক সহায়তা বিতরন করেছেন। প্রতিটি পরিবারের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেন খাদ্য সামগ্রী।

আছলাম বলেন, আমি ছোট বেলা থেকেই মানুষের পাশে থেকে মানুষের কল্যানে কাজ করে আসছি।হাতিবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদে আমার বাবা ও চাচা পরপর দুবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। আমাদের পরিবার থেকে আমি নৌকার হাল ধরতে চেয়েছিলাম। কিন্তু দল আমাদের পরিবারকে মুল্যায়ন করেনি। তাই আমি আগামী ৫ জানুয়ারী নির্বাচনে জনগনের রায় নিয়ে ইউনিয়নবাসীর প্রত্যশা পূরন করতে চাই ইন্যশাল্লাহ। আমি বাকি জীবন ও জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত মানুষের কল্যানে আমি কাজ করে যাবো জীবন উৎসর্গ করবো জনগনের কল্যানে

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000