সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৫০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
এনটিভির ২০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খাবার বিতরণ ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদানবিশ্বনাথে বন্যার্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার এান ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন নুনু মিয়ারাজনগরে কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও কৃষি অফিসারের কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধনবিশ্বনাথে থানা পুলিশের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণছাতকে ইমাম মোয়াজ্জিন গণকে খাদ্য সামগ্রী উপহার দিলেন সাহেলবিশ্বনাথে ‘বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের’ নগদ অর্থ বিতরণজামালপুরের বকশীগঞ্জে ইউনিয়ন বিএনপির কার্যালয় উদ্বোধনবালাগঞ্জে সালমান আহমেদের পরিবারের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণবিশ্বনাথে এক শিক্ষককে প্রাণ নাশের হুমকি দেওয়ায় থানায় সাধারণ ডায়েরীউপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান বকশীগঞ্জের আলহাজ গাজী আমানুজ্জামান মডার্ন কলেজ

জামালপুরের বকশীগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতি অবনতি, বসত ভিটা হারিয়ে দিশেহারা ২০ পরিবার

বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২
  • ৩১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

জামালপুরের বকশীগঞ্জে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হয়েছে। সেই সঙ্গে বকশীগঞ্জ উপজেলার নতুন নতুন এলাকা বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে। বন্যার কারণে বানভাসি পরিবার গুলো পানি বন্দি হয়ে চরম দুর্ভোগে রয়েছেন।



উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদ, দশানী ও জিঞ্জিরাম নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এ পর্যন্ত বকশীগঞ্জ উপজেলার সাধুরপাড়া, মেরুরচর, বগারচর ও নিলাখিয়া ইউনিয়নের ৩০ টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে করে এই এলাকার প্রায় ১৫ হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে ২১ জুন মঙ্গলবার দিনভর বৃষ্টি হওয়ায় বন্যা কবলিত এলাকার মানুষ ছিল চরম দুর্ভোগে। মানুষ তাদের পরিবারের শিশু, বৃদ্ধ নারী ও গবাদি পশু নিয়ে বিপাকে রয়েছেন।

বন্যার পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বকশীগঞ্জ উপজেলার সাধুরপাড়া ইউনিয়নের বাংগাল পাড়া, কতুবেরচর, চর আইরমারী , মেরুরচর ইউনিয়নের কলকিহারা গ্রাম , টুপকার চর ও নিলাখিয়া ইউনিয়নের সাজিমারা ও কুশল নগর গ্রামে তীব্র নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে। সোমবার এসব নদী ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করে ত্রাণ বিতরণ করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মুন মুন জাহান লিজা , উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. মজনুর রহমান ও ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু সহ অন্যান্যরা।

সাধুরপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু জানান, তার ইউনিয়নের বাংগাল পাড়া ও কতুবেরচর গ্রামে গত সাত দিনে জিঞ্জিরাম নদীর ভাঙনে ২০ টি পরিবারের বসত ভিটা নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের শিকার এসব পরিবার অন্যের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। বসত ভিটা হারিয়ে নি¤œ আয়ের এসব পরিবার দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

এদিকে পানি বন্দি মানুষ কর্মহীন হয়ে পারায় তাদের মধ্যে দুশ্চিন্তা বেড়েই চলছে। নি¤œ আয়ের এসব পরিবারের রোজগার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কষ্টে দিনানিপাত করছেন তাঁরা। সব মিলিয়ে চলতি বন্যায় অনেকটায় বিপাকে পড়েছেন পানি বন্দি মানুষ।

বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মুন মুন জাহান লিজা জানান, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন নদী ভাঙনের শিকার পরিবারকে ১০ কেজি চাল প্রদান করা হয়েছে। প্রয়োজন হলে বন্যা দুর্গত এলাকায় আরও ত্রাণ বিতরণ করা হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000