শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দুপক্ষের গোলাগুলিতে দিল্লির আদালতকক্ষে নিহত ৪আগামীকাল ফেঞ্চুগঞ্জের কটালপুরে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্নয়ডাঃ বদরুল জয়নাল ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের আলোচনা সভা বালাগঞ্জে অনুষ্ঠিতসামাজিক মাধ্যমে তোলপাড়, লেবুখালী পায়রা সেতুতে মাত্রাতিরিক্ত টোলউপজেলা পরিষদের সাধারণ সভা অনুষ্টিত সিলেটের বিশ্বনাথেসিলেটের বিশ্বনাথে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা সম্পন্নঅসুস্হ জিল্লু মিয়াকে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করলো বিশ্বনাথ ওয়ান পাউন্ড হসপিটালদুমকি সরকারি জনতা কলেজের ছাত্রদের বেঞ্চে বসাকে কেন্দ্র করে মারামারি আহত ০১কলেজছাত্রী তানিয়া ধর্ষণ ও হত্যা: আপীলেও খুনীদের ফাঁসি বহালনালা খাল বিল অবৈধ জালের দখলে, সৈয়দপুরে হারিয়ে যাচ্ছে দেশী প্রজাতির মাছ

গাইবান্ধা জুড়ে কঠোর লকডাউনের ষষ্ঠ দিনে মানুষের চলাচল বেড়েছে

সফিকুল ইসলাম রাজা,গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৮ জুলাই, ২০২১
  • ৬৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত দ্বিতীয় ধাপের নকঠোর লকডাউনের ষষ্ঠ দিন বুধবার (২৮ জুলাই) আগের দিনগুলোর তুলনায় রাস্তায় বেশি মানুষের চলাচল দেখা গেছে। রাস্তায় চেকপোস্টের সংখ্যাও তুলনামূলক কম।লকডাউনের শুরু থেকেই প্রশাসনের পাশাপাশি পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যরা মাঠে রয়েছেন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া অযৌক্তিক কারণে বের হলে ভ্রাম্যমাণ আদালত গ্রেপ্তার ও জরিমানা করছেন। এ ছাড়া জরুরি পরিষেবায় নিয়োজিতরা পরিচয়পত্র দেখানো ও প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি তল্লাশির সময় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানালে তারা তাদের গন্তব্যে বা কর্মস্থলে যেতে পারছেন।লকডাউনের ষষ্ঠ দিনেও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও গাইবান্ধার অনেক এলাকায় কিছু দোকানপাট খোলা ছিল। এছাড়াও নির্দেশ অমান্য করে জেলা শহর এবং উপজেলা সদরে মটরসাইকেল ও ইজিবাইকের সংখ্যা অনেক বেড়ে যাওয়ায় শহরের রাস্তায় যানবাহনের চলাচল ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।ব্যবসায়ীরা সুযোগ পেলেই দোকানের অর্ধেক পাল্লা খুলে অবাধে বেচাকেনা চালাচ্ছেন। এতে করে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে লোকজনের চলাচলের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। বিশেষ করে শহরের ইসলাম প্লাজা, স্টেশন রোড, সান্দারপট্টি, গফুর মার্কেট, কলেজ রোড, ভিএইড রোডসহ শহরতলি দারিয়াপুর, স্কুলের বাজার, দুইমাইল, পুলবন্দি, সুন্দরজাহান মোড়, মোল্লা বাজার, পাঁচজুম্মা, বোর্ড বাজার এলাকাগুলোতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে দোকান কর্মচারী ও মালিকদের দাঁড়িয়ে থেকে ভীড় করতে দেখা যায়।এদিকে উন্মুক্ত স্থানে কাচাবাজার বসানোর কথা থাকলেও তা পালন করা হচ্ছে না। শহরের পুরাতন বাজারে স্বাস্থ্যবিধি মানা তো দুরের কথা মাস্ক না পড়ে আগের মতই যথারীতি ভীড় করে কেনাকাটা করছে। ফলে শহরে লোকজনের চলাচল আগের চেয়ে অনেক বেড়ে যাওয়ায় মনেই হয় না লকডাউন চলছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000