বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:২৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বিশ্বনাথ উপজেলা আল ইসলাহ’র কমিটি: সভাপতি আখতার আলী সম্পাদক হাবিবজামালপুরের বকশীগঞ্জে দলিল লেখক সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিতদেবীদ্বার পৌর আওয়ামী লীগ নেতা মরহুম হাজী শহীদুল্লাহ খাজার জানাজা ও দাফন সম্পন্নকুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলা মহিলা শ্রমিক লীগের কমিটি ৩বছরের জন্য অনুমোদনদুমকিতে এইচ.এস.সি ও বি.এম পরীক্ষার প্রস্তুতিমূলক সভাফের গাজিপুরের এক গার্মেন্টসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাকিশোরগঞ্জে ভোটকেন্দ্রে বিজিবি সদস্য নিহতের ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দলের পরিদর্শনসৈয়দপুরে স্ত্রী হত্যাচেষ্টা মামলায় আ’লীগ নেতা জেল হাজতেবালাগঞ্জের কাশিপুর খালের ভাঙ্গন পরিদর্শন করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানসিটি কর্পোরেশন সহ সিলেটের ৩২টি অফিসের বিরুদ্ধে বেশি অভিযোগ দুদকের গণশুনানিতে

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে গ্রেফতার করেছে

সফিকুল ইসলাম রাজা,গাইবান্ধা প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১০ আগস্ট, ২০২১
  • ৬৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে জামাল হোসেন ওরফে এমদাদুল হক নামে এক ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে গাইবান্ধা থেকে গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার ভোর রাতে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ এ অভিযান চালান।

পুলিশ জানায়, গ্রেফকারকৃত এমদাদুল হক দীর্ঘদিন ধরে জামাল হোসেন নাম ব্যবহার করে নিজেকে এমবিবিএস, এফসিপিএস (ফিজিক্যাল এ- রিহ্যাবিলিটেশন) ডাক্তার পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ক্লিনিক ও ফার্মেসিতে রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিলেন। চাকুরি দেয়ার নাম করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে প্রতারণা করছিলেন।

এছাড়া গত বৃহস্পতিবার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত কেমিকো ফার্মাসিটিকেল লিমিটেডের মেডিকেল প্রোটাকশন অফিসার জুলফিকার হাবিবের মোটর সাইকেল নিয়ে এক ফার্মেসি থেকে অষুধ আনার কথা বলে পালিয়ে গেলে পরদিন শুক্রবার ডাক্তার এমদাদুল হকের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ করেন। পুলিশ তদন্ত চালিয়ে জানতে পারেন তিনি একজন ভূয়া ডাক্তার। তার কোন ডাক্তারী সার্টিফিসুন্দরগঞ্জে ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তার গ্রেফতার

সফিকুল ইসলাম রাজা, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে জামাল হোসেন ওরফে এমদাদুল হক নামে এক ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে গাইবান্ধা থেকে গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার ভোর রাতে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ এ অভিযান চালান।
পুলিশ জানায়, গ্রেফকারকৃত এমদাদুল হক দীর্ঘদিন ধরে জামাল হোসেন নাম ব্যবহার করে নিজেকে এমবিবিএস, এফসিপিএস (ফিজিক্যাল এ- রিহ্যাবিলিটেশন) ডাক্তার পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ক্লিনিক ও ফার্মেসিতে রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিলেন। চাকুরি দেয়ার নাম করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে প্রতারণা করছিলেন। এছাড়া গত বৃহস্পতিবার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত কেমিকো ফার্মাসিটিকেল লিমিটেডের মেডিকেল প্রোটাকশন অফিসার জুলফিকার হাবিবের মোটর সাইকেল নিয়ে এক ফার্মেসি থেকে অষুধ আনার কথা বলে পালিয়ে গেলে পরদিন শুক্রবার ডাক্তার এমদাদুল হকের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ করেন। পুলিশ তদন্ত চালিয়ে জানতে পারেন তিনি একজন ভূয়া ডাক্তার। তার কোন ডাক্তারী সার্টিফিকেট নেই। তিনি একসময় ঢাকায় এক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে কর্মচারি হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। মঙ্গলবার ভোর রাতে পুলিশ গাইবান্ধা সদর উপজেলার মালিবাড়ী বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তার জামাল হোসেন ওরফে এমদাদুল হক কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার নাখারগঞ্জ চওড়াটারী গ্রামের ময়েন উদ্দীনের ছেলে। থানার ওসি আব্দুল্লাহিল জামান জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।কেট নেই। তিনি একসময় ঢাকায় এক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে কর্মচারি হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। মঙ্গলবার ভোর রাতে পুলিশ গাইবান্ধা সদর উপজেলার মালিবাড়ী বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তার জামাল হোসেন ওরফে এমদাদুল হক কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার নাখারগঞ্জ চওড়াটারী গ্রামের ময়েন উদ্দীনের ছেলে। থানার ওসি আব্দুল্লাহিল জামান জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000