বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বিশ্বনাথে দুর্গত মানুষের মধ্যে এলবিএইচএইচ পক্ষ হতে নগদ অর্থ বিতরণবিশ্বনাথে বন্যার্তদের ঈদ উপহার দিয়ে যাত্রা শুরু করল সৈয়দবাড়ি ফাউন্ডেশনবিশ্বনাথ উন্নয়ন সংস্থা ইউকের আর্থিক সহযোগিতা পেলেন ২ শতাধিক বন্যার্তনীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার ৪৬২১ জনের মাঝে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ করলেন মেয়র রাফিকাবালাগঞ্জে কন্ঠ শিল্পী বন্যা তালুকদারের পক্ষ থেকে ত্রান সামগ্রী বিতরণবিশ্বনাথে বিভিন্ন স্থানে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করলেন এসএম নুনু মিয়াবিশ্বনাথে বন্যার্তদের মাঝে বেইত আল-খাইর সোসাইটি’র খাদ্যসামগ্রী বিতরণবিশ্বনাথে আশ্রয়ণ প্রকল্পে এসএম নুনু মিয়ার এান ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণসাংসদ আদেলের বরাদ্দে খাতামধুপুরের সুতারপাড়াবাসী পেলো হেরিং বোন রাস্তারাজনগরে ভোটার তালিকা হালনাগাদ সমন্বয় কমিটির সভা

গাইবান্ধার ফুলছড়িতে মাছ নিধন পুকুরে বিষ প্রয়োগে

সফিকুল ইসলাম রাজা,গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১
  • ৫৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

গাইবান্ধার ফুলছড়িতে পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছ নিধন করা হয়েছে। এতে ওই পুকুরের রেণু ও কাপজাতীয় মাছ নষ্ট হয়ে প্রায় ৪০ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্যচাষী দাবি করছেন।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ভোরে উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ মদনেরপাড়া গ্রামের নাছিম উদ্দিনের পুকুরে এ ঘটনা ঘটে।ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্যচাষী জুয়েল মিয়া বলেন, আমি একজন ছাত্র। করোনাকালীন সময় স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকায় বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড (বিআরডিবি) থেকে ২০ হাজার টাকার ঋণ ও বিভিন্নজনের কাছ থেকে ধারদেনা করে আমার বাবার দেড় বিঘা পুকুরে, সিলভার কার্প, রুই, তেলাপিয়া, পুঁটিসহ দেশীয় বিভিন্ন জাতের মাছ চাষ করেছি। কিছুদিনের মধ্যেই মাছগুলো বাজারে বিক্রির উপযোগী হয়ে উঠতো। কিন্তু আমার ক্ষতি করার জন্য কেউ বিষ প্রয়োগ করে মাছগুলো মেরে ফেলেছে।জুয়েল মিয়ার বাবা নছিম মিয়া বলেন, প্রথমে আমাদের ধারণা হয়েছিল অক্সিজেনের অভাবে মাছ মরে ভেসে উঠছে। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে পুকুরের গিয়ে দেখি সব মাছ মরে ভেসে উঠেছে। তখনই বুঝতে পারি বিষ প্রয়োগের কারণেই মাছ মরে গেছে।

কঞ্চিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লিটন মিয়া ঘটনাস্থলে গিয়ে বলেন, ভুক্তভোগী জুয়েল মিয়া ধারদেনা করে কষ্টের টাকা দিয়ে মাছ চাষ শুরু করেছিল। কিন্তু শত্রুতা করে তার স্বপ্ন পূরন করতে দিলো না। যারা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছ মেরে ফেলার মতো এই জঘন্যতম কাজ করেছে তদন্ত সাপেক্ষে তাদের শাস্তি হওয়া দরকার।এ বিষয়ে ফুলছড়ি মৎস্য কর্মকর্তা রাশেদা বেগম জানান, বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে অফিসের লোক পাঠিয়েছিলাম। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে বিষ প্রয়োগের কারণেই মাছগুলো মারা গেছে। আমরা পুকুরের পানি পরীক্ষার জন্য নিয়ে এসেছি। পরীক্ষার রিপোর্ট এলে সঠিক কারণ জানা যাবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000