সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৪০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নীলফামারীর সৈয়দপুর ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের শরীর তিন খন্ডদুমকিতে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের আনন্দ শোভাযাত্রানীলফামারীর সৈয়দপুরে ৫ টি দোকান আগুনে পুড়ে ছাই, ২০ লাখ টাকার ক্ষতিওসমানীনগরে বাড়ির উঠান দিয়ে রাস্তা নিতে প্রতিবন্ধি পরিবারে হামলানীলফামারীর সৈয়দপুরে থানা ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠিতছাত্রদল নেতা নয়ন হত্যার প্রতিবাদে সৈয়দপুরে বিএনপি বিক্ষোভ সমাবেশওসমানীনগরে কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণবালাগঞ্জে ফ্রান্স প্রবাসী কমিউনিটি নেতা সুমন এর পিতৃবিয়োগবকশীগঞ্জের বাঘাডুবি দাখিল মাদ্রাসা সুপারসহ ৬ জন শিক্ষককে বিদায়ী সংবর্ধনাসৈয়দপুর ক্রীড়া সংস্থা চ্যাম্পিয়ন রানার আপ পৌরসভা একাদশ

কুমিল্লার দেবীদ্বার ইউসুফপুরের সংঘাতের মূল হোতা মোঃ দেলোয়ার হোসেন দেলু

নিজেস্ব সংবাদদাতা
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২২
  • ১২৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলা ২নং ইউসুফপুর ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামে নির্বাচনে সহিংসতা নিয়ে প্রথম অবস্থায় আবুল কালাম আজাদ মেম্বার আনোয়ার হোসেন মেম্বারের নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করে তারপরে আনোয়ার মেম্বারের জনগনরা আবুল কালাম আজাদ মেম্বারের বাড়িতে গিয়ে আবুল কালাম আজাদ মেম্বার সহ তার দুই ভাইকে কুপিয়ে জখম করে ।



পরে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত হয়ে তাদের মারামারি নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়।পরে দুই দলকে সমঝোতায় আসতে মিটিং করে দুই পক্ষের সদস্যদের নিয়ে । মিটিং করে দুই পক্ষ বলেন আমরা সমাধানে যাবো এই কথা বলে আবারও আজ রাতে ৮ঘটিকার সময় মারামারি হানাহানি কাটাকাটি হয়। একই পরিবারের ৬জন আহত হয় । মোঃ দেলোয়ার হোসেন একজন হাফ মাডার মামলার আসামি,মামলা নং ০৫ তাং ৯/২/২০২২ইং ধারা ১৪৩/১৪৭/১৪৮/১৪৯/৪৪৭/৪৪৮/৩২৩/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৫৪/ও ৫০৬ ধারা মামলা করা হয় । শিবপুর গ্রামে ঘটনার মূল ইন্দন দাতা হচ্ছে লিয়াকত আলী মিন্টুর ছেলে মোঃ দেলোয়ার হোসেনের বিপক্ষের লোক জনকে লাঠি দিয়ে মারধর করে জখম করে। অনেক জনের মাথায় আঘাতের ফলে রক্তাক্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার পাশাপাশি আরো কিছু সংখ্যক মা-বোনদের ওপর লাঠিপেঠা করা হয়।

আরো বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায় শিবপুরের কিছু মানুষ নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক মোঃ দেলোয়ার হোসেন একজন শিক্ষিত ছেলে তার মনের মধ্যে কি করে আসে যে মারামারি কথা তিনি বলেন দেবীদ্বার ইউসুফপুর ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামে আজীবন মারামারি থাকবে এটা তাদের ছেলে সন্তান হবে মারামারি করবে ।

গ্রামের কিছু ব্যাক্তির কথায় বুঝা যায় এখনকার মারামারির মূল ইন্দন দাতা হচ্ছে লিয়াকত আলী মিন্টুর ছেলে মোঃ দেলোয়ার হোসেন। দেলোয়ার হোসেন এলাকায় এসে মিটিং করে সেল্টার দিয়ে যায় । এলাকার মানুষ মনে একজন শিক্ষক হয়ে গ্রামের সহিংসতা করা এটা তার কোন কাম্য না।গ্রাম বাসি বলেন দেলোয়ার হোসেনকে কোন এজেন্ডা আশ্রয় দেয়। আমরা গ্রামের শান্তি চাই, আর কোন মারামারি, সহিংসতা আমাদের শিবপুর গ্রামে চাই না। সবাই মিলে মিশে একাকায় বসবাস করতে চাই।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000