মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৫৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
শেখ কামাল আন্তঃস্কুল ও মাদ্রাসা এ্যাথলেটিকস্ প্রতিযোগিতার উদ্ভোধনসৈয়দপুরে সাবেক এমপি আমজাদ হোসেন সরকারসহ ৩ বিএনপি নেতার স্মরনসভা অনুষ্ঠিতমিরেরচরেই হবে টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ -বিশ্বনাথে এমপি মোকাব্বিরনীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ভূয়া এনএসআই সদস্যসহ আটক-২ওসমানীনগরের নবগ্রাম স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ কমিটি গঠনবাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা কমিটি গঠনসৈয়দপুরে বিসিক শিল্পনগরীতে প্লাইউড কারখানায় আগুনে কোটি টাকার ক্ষতিজামায়াত আমীর ডাঃ শফিকুর রহমানকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে লন্ডনে বিক্ষোভ সমাবেশছাতকের খুরমা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান বিজয় দিবসে আলোচনা সভানীলফামারীর সৈয়দপুরে মহান বিজয় দিবস পালিত

এসপি নাসির উদ্দিনের যোগদানের পরই কঠোর নিয়ন্ত্রনে জামালপুরের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি

জিএম ফাতিউল হাফিজ বাবু , বকশীগঞ্জ(জামালপুর)প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২১
  • ১৩৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

চলতি বছরের ২ মার্চ জামালপুরের পুলিশ সুপার হিসাবে যোগদান করেন নাসির উদ্দিন আহাম্মেদ। যোগদানের পর গত মার্চ থেকে এ পর্যন্ত ৭৯৫.১ গ্রাম হিরোইন, ৭ হাজার ৫৬৫ পিস ইয়াবা, ৬৪.২৩কেজি গাজা, ১৭১লিটার চোলাইমদ ও ৫৫০ লিটার ওয়াশ, ২১৪পিস সিডিল ট্যাবলেট, ১৫পিস ইনজেকশন ও ৭পিস এভিল ইনজেকশন উদ্ধার করা হয়েছে। যার টাকায় মুল্য ১ কোটি ১০লক্ষ ১৭ হাজার ৫০০টাকা।
এ সময় জামালপুরর সর্বমোট ২ হাজার ৬১০জন অপরাধীকে বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগের ইতিহাসে সবচেয়ে কম সময়ে মামলার তদন্ত কাজ শেষ করে অভিযোগপত্র দাখিলের রেকর্ড করেছে পুলিশ সুপার নাসির উদ্দিনের আহাম্মদের দিক নির্দেশনায়। জামালপুরের বকশীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় একটি মামলা মাত্র ২০ ঘন্টায় অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। যার পিছনে ছিলেন এসপি নাসির উদ্দিন আহাম্মেদ।
বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী একটি জেলা হচ্ছে জামালপুর। দেশের বৃহত্তম দুই নদী যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র এই জেলার উপর দিয়ে বয়ে গেছে। জেলায় বিস্তীর্ণ নদী থাকায় এখানে প্রায় সময় নৌ-ডাকাতি একটি সাধারন বিষয় হয়ে দাড়িয়ে ছিল। তিনি যোগদানের পর কঠোর পর্যবেক্ষনের ফলে গত ৩ মাসে একটিও এ ধরনের ঘটনা ঘটেনি।
এছাড়া জেলার সাথে ভারতীয় সীমান্ত থাকায় এখানে চোরাচলান নিত্তনৈমিত্তিক ব্যাপার ছিল। কিন্তু এসপি হিসাবে নাসির উদ্দিন আহাম্মেদের যোগদানের পর সীমান্তে চোরাচালন শতভাগই বন্ধ হয়ে গেছে। পাশাপাশি মাদকের ভয়াল ছোবল থেকেও রক্ষা পেয়েছে যুব সমাজ।
সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, জুয়া ও বাল্যবিয়ে বন্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহন করার ফলে অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে জামালপুরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক।
বৈশ্বিক মহামারী করোনাকালীন সময়ে এসপি নাসির উদ্দিন আহাম্মেদের ভুমিকা ছিল নজরকাড়া। সরকার ঘোষিত কঠোর লক ডাউন বাস্তবায়নে পুলিশের ভুমিকা ছিল অত্যন্ত কঠোর পাশাপাশি মানবিক কার্যক্রম খাদ্য সহায়তা, আর্থিক সহায়তা ও মাস্ক বিতরণ কর্মসুচিগুলো ছিল প্রশংসার দাবীদার।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000