মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
এম ইলিয়াছ আলীর সন্ধান কামনায় বিশ্বনাথে দোয়া মাহফিলবিশ্বনাথে এমএ খান সেতুর টুল আদায় সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনে সভাতরুণ সমাজকর্মী লিমনের উচ্ছ শিক্ষায় যুক্তরাজ্য গমন উপলক্ষে বিদায়ী সংবর্ধনাবিশ্বনাথে নানান আয়োজনে শেখ রাসেল দিবস ২০২১ পালনবিশ্বনাথের ছরকুম আলী দয়াল হত্যা- পুনঃ তদন্তে পিবিআইশেখ রাসেলের জন্ম দিবস পালিত বকশীগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগেনারী উন্নয়ন ফোরাম সৈয়দপুরের উদ্যোগে শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরণডাক্তার ও সেবা নেই – রোগী আছে, হাসপাতাল আছেশিহাব উদ্দিন মনোনয়নপত্র জমা দিলেন, পূর্বপৈলনপুরে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবেবকশীগঞ্জে ছাত্রদলের ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড ইউনিটের সকল কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

আগামী মাসে দীর্ঘ দিনের ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে

মোঃমিজানুর রহমান, পটুয়াখালী প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

পটুয়াখালীর পায়রা নদীর উপরে নির্মিত লেবুখালী সেতু যান-চলাচলের জন্য আগামী অক্টোবর মাসের যেকোনো দিন খুলে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সেতু কর্তৃপক্ষ। আর এতেই আগামী অক্টোবর থেকে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় ফেরী রুট লেবুখালী ফেরীঘাট। ৩৩- বছর যাবৎ ফেরীতে চাকুরী করা ফেরী চালক মোঃ শাহ-আলম দীর্ঘশ্বাস ফেলে বলেন অনেক স্মৃতি জড়িত এই ফেরীঘাটে। খুব খারাপ লাগছে আর কয়েক দিন পরেই।

এখানে ফেরী চলাচল বন্ধ হয়ে যাবে। আবার খুবই ভালোও লাগছে যে হাজার হাজার মানুষ শতশত যানবাহন ফেরীঘাটের ঝামেলা ছাড়াই কয়েক মিনিটেই সেতু দিয়ে পারাপার হবে। কথার প্রসঙ্গে ফেরী মাস্টার মোঃ শাহ-আলম বলেন আমি ১৯৮৬ সালে ফেরীতে চাকুরী নেয়ার পরে দেশের বিভিন্ন স্থানে চাকুরী করেছি, আমি বরিশাল দবদবিয়া ফেরীতে চাকুরী করছি দীর্ঘদিন।

প্রায়-একযুগ আগে ২০১১ সালে আমি এই লেবুখালী ফেরীতে যুক্ত হই। তিনি আরো জানান লেবুখালী ফেরীঘাটে মোট ৬-টি ফেরী চলাচল করে। ৬-টি ফেরীতে ১০ জন ফেরী চালক সহ প্রায়-৫০ জন স্টাফ আছে। তবেঁ ফেরী বন্ধ হলে ১০ জন চালক ছাড়া বাকিদের অন্য কোথায় বদলী হওয়ার কোন সুযোগ নাই কারন তারা সরকারি তালিকাভুক্ত নয়।

জানাগেছে ৮০ দশকের দিকে ঢাকার সাথে দক্ষিণাঞ্চলের সড়ক যোগাযোগব্যবস্থা উন্নতি করতে কয়েকটি নদীতে ফেরী চলাচল চালু করে তৎকালীন সরকার। গত কয়েক বছর আগে বরিশাল থেকে পটুয়াখালীর সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটায় যাওয়ার জন্য ছোট-বড় ৬-টি ফেরী পাড় হতে হতো। তবেঁ লেবুখালী ফেরী ছাড়া অন্য ফেরীগুলো আগেই সেতু হওয়ায় বন্ধ হয়ে গেছে।

আগামী মাসে লেবুখালী পায়রা সেতু উদ্বোধনের পর বরিশাল থেকে সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটা , পায়রা বন্ধর ও তাপবিদ্যুুত কেন্দ্রে যেতে আর কোন ফেরী পারাপার হতে হবেনা। লেবুখালী ফেরীঘাট সুপারভাইজার মোঃ আফজাল হোসেন জানান, লেবুখালীতে চারটি নতুন ফেরী চলাচল করে এবং দুটি পুরাতন ফেরী আছে। নতুন চারটি ফেরী পটুয়াখালীর বগাতে একটি,আমতলীতে একটি,গলাচিপাতে একটি ও পায়রাগঞ্জ ফেরীঘাটে একটি দেয়া হবে,আর পুরাতন দুটি ঢাকায় মেরামতের জন্য পাঠানো হবে।

এবিষয়ে পটুয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুল হাসান জানান ব্রীজ চালু হওয়ার পরে ঢাকা থেকে ফেরীর বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-15000